গারুলিয়ায় কলেজ ছাত্রীর শ্লীলতাহানির অভিযোগে ধৃত দুই সাধু বাবার তিনদিনের পুলিশি হেফাজত

ব্যারাকপুর : নোয়াপাড়া থানার গারুলিয়া সোদলা ট্যাঙ্ক রোড এলাকায় গৃহস্থের বাড়িতে ঢুকে কলেজ ছাত্রীকে শ্লীলতাহানি করার অভিযোগে পুলিশ দুই সাধুকে শনিবার রাতে গ্রেপ্তার করেছে। ধৃতদের নাম বাবলু লাল দেব ও বেচান্ত লাল দেব। ধৃতদের আদিবাড়ি বিহারের দ্বারভাঙ্গায়। হুগলিতে ওরা ভাড়া থাকে। রবিবার ধৃতদের ব্যারাকপুর আদালতে তোলা হয়। বিচারক ধৃতদের তিনদিন পুলিশি হেফাজতে রাখার নির্দেশ দেন।

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, শনিবার দুপুরে দুই সাধু হাজির হয় গারুলিয়ায় এক গৃহস্থের বাড়িতে। প্রথমে দুজন ধুপকাঠি চায়। তারপর ওরা জল চায়। একজন ঘরের বাইরে পিঁড়িতে বসে থাকে। আরেকজন ঘরে ঢুকে কলেজ ছাত্রীর হাত দেখে। সাধুরা মেয়েটির মাকে বলে, মেয়েটির সময় খারাপ আসছে। তাবিজ কবজ নিলে বিয়ের পর মেয়ে সুখে-শান্তিতে থাকবে। তাবিজ-কাবজের বিনিময়ে দুই সাধু ওই মহিলার কাছে নয় হাজার টাকা দাবি করে।

মেয়েকে ঘরে একা রেখে টাকা জোগাড় করতে বেরোন ওই মহিলা। ফাঁকা বাড়ি পেয়ে ওই দুই সাধু মেয়েটিকে শ্লীলতাহানি করে বলে অভিযোগ। মেয়েটি চিৎকার করলে দুই সাধু ঘর থেকে বেরিয়ে যায়। সাধুদের শাস্তির দাবিতে নোয়াপাড়া থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়। সেই অভিযোগের ভিত্তিতে নোয়াপাড়া থানার পুলিশ ওইদিন রাতে গারুলিয়ার পিনকল এলাকা থেকে দুই সাধুকে গ্রেপ্তার করেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

13 + two =