ভোট যুদ্ধে মুখোমুখি প্রাক্তন স্বামী এবং স্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদন, বাঁকুড়া: পশ্চিমবঙ্গের বাঁকুড়া জেলার বিষ্ণুপুর লোকসভা কেন্দ্র এখন সারা ভারতবর্ষের কাছে আলোচনার কেন্দ্রবিন্দু। এই লোকসভা কেন্দ্রে প্রাক্তন স্বামীর মুখোমুখি প্রাক্তন স্ত্রী। সৌমিত্র খাঁ যিনি বিজেপির টিকিটে ২০১৯ সালে এই লোকসভা কেন্দ্র থেকে সাংসদ নির্বাচিত হয়েছিলেন, তাঁরই বিপক্ষে এবারে তৃণমূলের টিকিটে ভোটে দাঁড়াচ্ছেন প্রাক্তন স্ত্রী সুজাতা মণ্ডল। ভোট যুদ্ধে মুখোমুখি প্রাক্তন স্বামী এবং স্ত্রী।
প্রসঙ্গত, ২০১৯ সালে যখন সৌমিত্র খাঁ বিজেপির টিকিটে এই বিষ্ণুপুর লোকসভা কেন্দ্র থেকে প্রার্থী হিসেবে মনোনীত হয়েছিলেন। সেই সময় সৌমিত্র এবং সুজাতার দাম্পত্য সম্পর্ক ঠিক ছিল তাই আইনি জটিলতার কারণে সৌমিত্র খাঁ প্রচারে এই লোকসভা কেন্দ্রে প্রবেশ করতে না পারলেও, প্রচারের গুরু দায়িত্ব সামলেছিলেন স্ত্রী সুজাতা। সেই ২০১৯ এর লোকসভা নির্বাচনে বিষ্ণুপুর লোকসভা কেন্দ্র থেকে সাংসদ হিসেবে নির্বাচিত হয়েছিলেন সৌমিত্র খাঁ। পরবর্তীতে তাঁদের সম্পর্কে ফাটল দেখা দিলে সুজাতা মণ্ডল বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে যোগদান করেন। পরে বিবাহ বিচ্ছেদ সম্পন্ন হলে তাঁরা একে অপরের রাজনৈতিক শত্রু হিসেবেও পরিণত হয়। বিভিন্ন সময়ে একে অপরকে বিভিন্ন ভাবে বাক্যবাণে আক্রমণ শানাতে দেখা গিয়েছে।
এবার ২০২৪ এর লোকসভা নির্বাচনে সুজাতা মণ্ডল তৃণমূল কংগ্রেসের হয়ে টিকিট পান বিষ্ণুপুর লোকসভা কেন্দ্রের জন্যই। ফলে মুখোমুখি ভোট যুদ্ধ হতে চলেছে প্রাক্তন স্ত্রী এবং স্বামীর। ভারতবর্ষের নির্বাচনী ইতিহাসে এই হয়তো প্রথম মুখোমুখি ভোটের লড়াই প্রাক্তন স্বামী-স্ত্রীর। রাজনৈতিক মহলের দাবি, এটা শুধু ভোট যুদ্ধই নয় এটা যেন একটা প্রেস্টিজ ফাইট। প্রার্থী হিসেবে দু’জনের নাম ঘোষণা হওয়ার পরই রীতিমতো প্রচার শুরু করে দিয়েছেন তাঁরা। দু’জনেই যেন জিততে মরিয়া।
বিজেপি প্রার্থী সৌমিত্র খাঁর দাবি, ‘ভেবেছিলাম আমার বিরুদ্ধে কোনও রাজনৈতিক প্রার্থী দেওয়া হবে, কিন্তু তৃণমূলের প্রার্থী তালিকা ঘোষণা হওয়ার পর আমার জয় আরও সহজ হয়ে গেল।’ তৃণমূল প্রার্থী সুজাতা মণ্ডলের দাবি, ‘আমার বিপক্ষে প্রার্থী যেই হোক, আমার একটাই টার্গেট এই বিষ্ণুপুর লোকসভা কেন্দ্র তৃণমূলকে উপহার দেওয়া।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *