স্বাস্থ্যসাথীর ‘বকেয়া’ নিয়ে জটিলতা, এবার স্বাস্থ্য সচিবকে চিঠি ডক্টর্স ফোরামের

কলকাতা: স্বাস্থ্যসাথী প্রকল্পের আওতায় অস্ত্রোপচার-সহ একাধিক পরিষেবা দিয়েও সময়ে মিলছে না টাকা। এমন অভিযোগ তুলে সমস্যা সমাধানের আর্জি জানিয়ে স্বাস্থ্যসচিব নারায়ণস্বরূপ নিগমকে চিঠি দিল ওয়েস্ট বেঙ্গল ডক্টর্স ফোরাম। গত সপ্তাহেই স্বাস্থ্য দফতরকে চিঠি দিয়েছে আটটি বেসরকারি হাসপাতাল সংগঠন। তাদের বক্তব্য, স্বাস্থ্যসাথী প্রকল্পে প্রায় ২০০ কোটি টাকা বকেয়া রয়েছে। এই টাকা না মেটালে তাদের পক্ষে স্বাস্থ্যসাথীর সুবিধা দেওয়া সম্ভব হবে না।

স্বাস্থ্য দফতরে জানানোর পর এবার একই আর্জি নিয়ে স্বাস্থ্যসচিব নারায়ণস্বরূপ নিগমের দ্বারস্থ ওয়েস্ট বেঙ্গল ডক্টর্স ফোরাম। অভিযোগ, স্বাস্থ্যসাথী প্রকল্পে অস্ত্রোপচারের পর, সময়ে পারিশ্রমিক পাচ্ছেন না বেসরকারি হাসপাতালের চিকিৎসকরা। সরকারের কাছে পাওনা বকেয়া থাকায় চিকিৎসকদের টাকা দিতে দেরি করছে বেসরকারি হাসপাতালগুলি। চিঠিতে এমনটাই বক্তব্য চিকিৎসক সংগঠন ওয়েস্ট বেঙ্গল ডক্টর্স ফোরামের। এই সমস্যার সমাধানের আর্জি জানিয়েও স্বাস্থ্যসচিবকে চিঠি দিয়েছে এই বেসরকারি চিকিৎসক সংগঠন।

গত সপ্তাহেই বেসরকারি হাসপাতালগুলির তরফে যে চিঠি দেওয়া হয়েছিল তাতে বলা হয়, স্বাস্থ্যসাথী প্রকল্পে যে দরে চিকিৎসার খরচ বেসরকারি হাসপাতালগুলিকে দেওয়া হচ্ছে, সেই দরে এখন আর চিকিৎসা করা সম্ভব নয়। কারণ, কোভিড পরবর্তী পরিস্থিতিতে সমস্ত চিকিৎসা সামগ্রীরই দাম বেড়েছে।চিকিৎসক সংগঠনগুলিও স্বাস্থ্যসাথী সংক্রান্ত খরচের বিষয়টিকে সামনে রেখেই জানিয়েছে, এই প্রকল্পের আওতায় যে অস্ত্রোপচারগুলি করা হচ্ছে তাতে চিকিৎসকদের যে পারিশ্রমিক পাওয়ার কথা তা তাঁরা পাচ্ছেন না। অনেকেই মনে করছেন বেসরকারি হাসপাতালগুলির সুরই শোনা যাচ্ছে এই চিকিৎসক সংগঠনের চিঠিতে।

যদিও চিকিৎসক সংগঠনের নেতা পুণ্যব্রত গুন তা মানতে নারাজ। পুণ্যব্রত গুন বলেন, ‘হাসপাতালের বিষয়টা হাসপাতাল কর্তৃপক্ষই বলতে পারবে। কারণ আমরা বেসরকারি হাসপাতালের প্রতিনিধি নই। আমরা চিকিৎসকদের প্রতিনিধি।’

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

four × 1 =