লন্ডনের মিউজিয়ামে প্রদর্শনীতে কুমোরটুলির কালী প্রতিমা

কলকাতা: গায়ের রং তাঁর ঘোর কৃষ্ণবর্ণা, মুন্ডমালিনী দেবীর পায়ের নীচে শিব। তিনি দেবী কালী। তাঁরই মূর্তি এবার নিয়ে যাওয়া হল লন্ডনে। সেখানকার ব্রিটিশ মিউজিয়ামে এবার বসছে কুমোরটুলির তৈরি কালী প্রতিমা।
প্রতিবছর বিদেশে দুর্গাপুজো হয় সেটা সকলেই জানেন। লন্ডনে বিভিন্ন আকারের দুর্গা প্রতিমা যায় প্রতি বছরই। কিন্তু এই উদ্যোগ অনেকটাই আলাদা। এর পিছনে রয়েছে ‘গডেস-ফিমেল পাওয়ার ইন ওয়ার্ল্ড বিলিফ’। ‘নারীশক্তির ক্ষমতায়ন’ এমনই বিষয়কে বেছে নেওয়া হয়েছে প্রদর্শনীর জন্য। আর সেখানে পৃথিবীর তিন দেবী স্থান পাচ্ছেন, যাঁদের রুo রূপ। এই তালিকায় থাকছেন গ্রিসের শিল্পের দেবী এথেনা, মিশরের যুদ্ধের দেবী সেখমেতের পাশাপাশি হিন্দু দেবী কালী। কালী মূর্তির উদ্বোধন হবে ১৭ মে।
কালীর রূপ এখানে ভয়ঙ্কর। কালো কালী মূর্তির হাঁটু পর্যন্ত দুলছে মুন্ডমালা, পায়ের নীচে শিবের অধিষ্ঠান, পিছনে সোনালী চালচিত্র, মূর্তির ওজন ৩৫ কিলোগ্রাম। মূর্তিটা তৈরি করেছেন কলকাতার কুমোরটুলির শিল্পী কৌশিক ঘোষ।
গত ৫৯ বছর ধরে ইউরোপের প্রথম দুর্গা পুজো হয়ে আসছে ক্যামডেন শহরে। সেই সুবাদে যখন ব্রিটিশ মিউজিয়াম ঈশ্বর ভাবনায় এই উদ্যোগ নেন তাঁরা ক্যামডেন দুর্গাপুজো উদ্যোক্তাদের সঙ্গে যোগাযোগ করেন। ক্যামডেন দুর্গা পুজো কমিটির চেয়ারপার্সন ডা. আনন্দ গুপ্ত এতে সামিল হন।
১৭মে এই মূর্তির উদ্বোধন হবে। এই মূহুর্তকে আরও মনোময় করে তোলার জন্য আনন্দ গুপ্তের নির্দেশনায় রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের চিত্রাঙ্গদা পরিবেশন করা হবে। এই মূর্তি তৈরি করতে সময় লেগেছে দেড় মাস। মূর্তি পৌঁছে গিয়েছে ব্রিটিশ মিউজিয়ামে। আনন্দ গুপ্তর কথায়, ‘সত্যি এক ইতিহাসের সাক্ষী হতে চলেছি। গর্ব অনুভব করছি এমন একটা উদ্যোগের সঙ্গে থাকতে পেরে।’
(ছবি আছে)

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

sixteen + two =