গরমের পান্তা! গুণ জানলে চোখ কপালে উঠবে

ভাত সারা রাত জলে ভিজিয়ে সকালে কাঁচা পেঁয়াজ, লঙ্কা, চপ, আলু ভাতে দিয়ে খাওয়ার রেওয়াজ বহু দিনের। গ্রাম বাংলার এই খাবার অবশ্য গরমের দিনে রেস্তোরাঁয় রীতিমতো টাকা দিয়ে খেতে যাচ্ছেন শহুরে মানুষরা।

অনেকে পান্তা ভাত বললেই নাক সিঁটকান, আর অনেকে দিব্যি মজা করে খান। তবে গরমের দিনে এই জল দেওয়া ভাতের খাবার চল কিন্তু বহু বছর আগে এমনি এমনি হয়নি। পান্তা ভাত হল আসলে কিছুটা ফারমেন্টেড। যা গরমের দিনে শরীর সুস্থ রাখতে খুব কার্যকর।

পুষ্টিবিদরাই বলছেন, পেট ঠান্ডা থেকে ভাল ঘুম, রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণ থেকে সুন্দর ত্বক সবই হবে পান্তা ভাতে। তবে, আর একটা কথা গ্রাম বাংলার পান্তা কিন্তু বিভিন্ন রাজ্যেই খাওয়া হয়। শুধু রাজ্যে ভেদে তার নাম যায় বদলে।

পান্তাভাতের গুণাগুণ

অ্যাসিডিটি থেকে মুক্তি:বিজ্ঞানীদের মতে পান্তাভাত পিএইচ ব্যালেন্স করতে সাহায্য করে। আলসার রোগীদেরও সুফল দেয় ।

ফারেমেন্টশনে বাড়ে গুণ-ফারমেন্টেড হওয়ার ফলে পান্তা ভাতে পুষ্টিগুণ বেড়ে যায়। এটি ক্লান্তি দূর করে। কিছু ক্ষেত্রে অনিদ্রা দূর করতেও সাহায্য করে।

কোষ্ঠকাঠিন্যের সমস্যা:ন্যাচারাল ল্যাক্সেটিভ হিসেবে কাজ করে। কোষ্ঠকাঠিন্য কমাতে সহায়তা করে।

রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণ:রক্তচাপের রোগীদের ক্ষেত্রে এটি বেশ কার্যকরী। সাধারণ ভাতের তুলনায় এতে সোডিয়ামের পরিমাণ কম। অন্যদিকে পটাশিয়ামের পরিমাণ যথেষ্ট বেশি।

তাই ওজন বাড়ার ভয় না থাকলে নিশ্চিন্তে খান পান্তা।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

twelve − 6 =