আউশগ্রামে প্রথম শুটিং নন্দিতা ও শিবপ্রসাদের ‘বহুরূপী’ ছবির

নিজস্ব প্রতিবেদন, আউশগ্রাম: ভোটের মরশুমে আউশগ্রামে প্রথম শুটিং শুরু করলেন নন্দিতা রায় ও শিবপ্রসাদ মুখোপাধ্যায়। তাঁদের নতুন ছবি সত্য ঘটনা অবলম্বনে ‘বহুরূপী’ এর প্রথম দৃশ্য গ্রহণ হল আউশগ্রামের কালিকাপুর রাজবাড়িতে। মঙ্গলবার দিনভর অভিনেতা কৌশানি মুখোপাধ্যায় ও ঋতাভরী চক্রবর্তীর অভিনয়ের সাক্ষী থাকল আউশগ্রাম জঙ্গলমহল।
জঙ্গল ঘেরা কালিকাপুর রাজবাড়ির সামনে জোড়া টেরাকোটা মন্দির রয়েছে। তার সামনেই বিয়ের দৃশ্য গ্রহণ করেন চিত্রগ্রাহক ইন্দ্রনাথ মারিক। আর বিয়ের দৃশ্য অসাধারণ অভিনয় করলেন কৌশানি। সামনের মুদির দোকানে ফোন করার দৃশ্যও গ্রহণ করা হয়। এদিন শুটিং ঘিরে ব্যাপক উন্মাদনা দেখা যায় গ্রামজুড়ে।
জানা গিয়েছে, উইনডোজ প্রোডাকশনের এবারের পুজোয় ‘বহুরূপী’ ছবি দর্শকদের উপহার দিতে চলেছেন নন্দিতা-শিবপ্রসাদ জুটি। ছবিটি বহুরূপীর জীবন কাহিনি নিয়ে। একটি সত্য ঘটনাকে সামনে রেখেই ছবির কাহিনী তুলে ধরা হয়েছে। বোলপুরের লাইম প্রোডিউসর কার্তিক শেঠের ব্যবস্থাপনায় ছবির শুটিংয়ের দৃশ্য গ্রহণের কাজ চলছে। কার্তিকবাবু জানান, নন্দিতাদি আর শিবপ্রসাদদার কাজ আর কি বলব। তিনদিন ধরে আউশগ্রামের জঙ্গলে শুটিং হবে। তারপরে বোলপুরে দৃশ্য গ্রহণ করা হবে।
প্রসঙ্গত, আউশগ্রামের কালিকাপুর রাজবাড়িতে প্রচুর সিনেমার শুটিং হয়েছে। অতীতে বলিউডের পিপ্পা ছবির শুটিংও এখানে হয়েছে। তাছাড়া পাভেলের রসগোল্লা ছবিরও এখানে দৃশ্যগ্রহণ করা হয়েছে। পাশাপাশি প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়ের ‘আয় খুকু আয়’ ছবিরও শুটিং কালিকাপুরেই হয়েছে। অভিনেতা সোহমের ‘ফাঁদে পড়িয়া বগা কাঁদে রে’ ছবির একটি দৃশ্য, প্রসেনজিত চট্টোপাধ্যায়ের ‘হনুমান ডট কম’ ছবির একটি দৃশ্য সহ একাধিক ছবির শুটিং হয়েছে কালিকাপুরেই। এদিন গ্রামের মানুষ কৌশানিকে একঝলক দেখার জন্য মুখিয়ে ছিলেন। পুলিশের নিরাপত্তা ছিল গোটা গ্রামজুড়ে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

16 − 13 =