গুরুতর জখম হলেও আপাতত স্থিতিশীল মুখ্যমন্ত্রী, গেলেন বাড়িতে

বাড়ির চত্বরে হাঁটার সময় পড়ে গিয়ে গুরুতর জখম হলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তাঁকে এসএসকেএম হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।  তৃণমূল সূত্রে খবর, বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় কালীঘাটে নিজের বাসভবনে হাঁটতে গিয়ে পড়ে যান মমতা। তাঁর কপালে চোট লাগে। কপাল ফেটে রক্ত গড়িয়ে পড়ে। তৃণমূলের এক্স হ্যান্ডলে মুখ্যমন্ত্রীর রক্তাক্ত অবস্থার ছবি পোস্ট করা হয়। এসএসকেএম হাসপাতালে তাঁকে নিয়ে আসেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। তৃণমূলের পোস্ট করা ছবিতে দেখা যায়, মমতার কপালের ঠিক মাঝখানে কেটে গিয়েছে। সেখান থেকে রক্ত গড়িয়ে নাকের পাশ দিয়ে ঠোঁট ছুঁয়ে গলা পর্যন্ত নেমেছে। তবে মুখ্যমন্ত্রীর কপালে সেলাই করা হয়েছে বলে খবর।

প্রাথমিক চিকিৎসার পর মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে এসএসকেএম হাসপাতালের কেবিন থেকে বার করা হয়। হুইল চেয়ারে করে তাঁকে নিয়ে যাওয়া হয় হাসপাতালের ওপিডি বিল্ডিংয়ে। মাথায় ব্যান্ডেজ বাঁধা। পাশে ছিলেন অভিষেক। হাসপাতাল সূত্রে জানা গিয়েছিল, কপালে গভীর ক্ষত হয়েছে মুখ্যমন্ত্রীর। তিনি আচ্ছন্ন অবস্থায় ছিলেন বেশ কিছু ক্ষণ। একাধিক পরীক্ষা করা হয়। সেলাই করা হয় কপালে। আপাতত স্থিতিশীল রয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী।

অভিষেকের গাড়িতেই কালীঘাট থেকে এসএসকেএম হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয় মমতাকে। সেখানে সাড়ে ১২ নম্বর কেবিনে তাঁকে রাখা হয়। সেখান থেকে রাত সাড়ে ৯টা নাগাদ তাঁকে বার করে নিয়ে যাওয়া হয় ট্রমা কেয়ার সেন্টারে। সবরকম পরীক্ষার পর অবশেষে মুখ্যমন্ত্রীকে বাড়িতে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।  আপাতত তিনি স্থিতিশীল রয়েছেন বলে খবর।

ইতিমধ্যেই মুখ্যমন্ত্রীর দ্রুত আরোগ্য কামনা করেছেন সুকান্ত মজুমদার, অধীর চৌধুরী, কেজরিওয়াল, খোঁজ নিয়েছেন জগদীপ ধনখড়, মুখ্যমন্ত্রীকে দেখতে যান রাজ্যপাল সিভি আনন্দ বোস।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *