ভূমিকম্পে বিধ্বস্ত তাইওয়ান, মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৭, জারি সুনামি সতর্কতা

ভয়াবহ ভূমিকম্পের কবলে তাইওয়ান । রিখটার স্কেলে ভূমিকম্পের তীব্রতা ছিল ৭.৪। এখনও পর্যন্ত এই বিপর্যয়ে ৭ জনের মৃত্যুর কথা জানা গিয়েছে। আহত অন্তত ৭০০। বড়সড় এই কম্পনের জেরে সুনামি সতর্কতা জারি করা হয়েছে প্রশান্ত মহাসাগরীয় দ্বীপপুঞ্জ তাইওয়ানে। এছাড়াও সুনামি সতর্কতা জারি হয়েছে দক্ষিণ জাপান ও ফিলিপিন্সে। এই পরিস্থিতিতে তাইওয়ানে থাকা ভারতীয়দের উদ্দেশে জারি হয়েছে নির্দেশিকা। ২৫ বছরের মধ্যে এটাই তাইওয়ানে হওয়া সবচেয়ে শক্তিশালী ভূমিকম্প।

ইউনাইটেড স্টেটস জিওলজিক্যাল সার্ভে (ইউএসজিএস) সূত্রে জানা গিয়েছে, স্থানীয় সময় অনুযায়ী বুধবার সকাল ৮টা নাগাদ কেঁপে ওঠে তাইওয়ানের রাজধানী তাইপেই এবং তার পার্শ্ববর্তী এলাকা। ইউএসজিএস-এর তরফে জানানো হয়েছে, এই কম্পনের উৎসস্থল তাইওয়ানের দক্ষিণে হুয়ালিয়েন সিটি থেকে ১৮ কিলোমিটার দূরে ভূগর্ভ থেকে ৩৪.৮ কিলোমিটার গভীরে।

ভূমিকম্পে অন্তত ২৬টি বাড়ি ভেঙে পড়ার কথা জানা যাচ্ছে। যার মধ্যে অর্ধেক বাড়িই হুয়ালিয়ন শহরে অবস্থিত। ধ্বংসস্তূপে উদ্ধারকাজ শুরু করা হয়েছে। অন্তত ২০ জন সেখানে আটকে রয়েছেন বলে খবর। পাশাপাশি সুনামি সতর্কতা ঘিরেও আতঙ্ক সৃষ্টি হয়েছে। কম্পনের মাত্রা বেশি থাকায় স্থানীয় বাসিন্দারা আতঙ্কিত হয়ে ঘর ছেড়ে রাস্তায় বেরিয়ে পড়েন। ভূমিকম্পের ফলে শহর জুড়ে প্রচুর ক্ষতি হয়েছে। স্থানীয় সংবাদ সংস্থা সূত্রে খবর, উঁচু উঁচু বহুতলগুলি এক দিকে হেলে পড়েছে। বাসিন্দারা সমাজমাধ্যমে তার ভিডিয়োও পোস্ট করেছেন।

স্থানীয় সূত্রে খবর, প্রায় ২৫ বছর পর তাইওয়ানে এই ধরনের প্রবল ভূমিকম্প হয়েছে। এর আগে ১৯৯৯ সালের সেপ্টেম্বর মাসে তাইওয়ানে ভূমিকম্পের ফলে মারা গিয়েছিলেন ২,৪০০ জন। এই কম্পনের তীব্রতা ছিল ৭.৬।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *