সরস্বতী পুজোর ভাসানে যেতে দেননি মা, অভিমানে ‘আত্মহত্যা’!

সরস্বতী পুজোর ভাসানে যেতে দেননি মা। বলেছিলেন সামনেই পরীক্ষা। সরস্বতী পুজোয় ছাড় মিলেছে সারা দিন। এবার বই নিয়ে বোস।
তাতেই অভিমানে আত্মঘাতী হল নবনালান্দা স্কুলের নবমের ছাত্রী। ঘর থেকে ঝুলন্ত দেহ উদ্ধারের পর পরিবারের দাবি মেয়ে আত্মহত্যা করেছে। ঘটনাটি খতিয়ে দেখছে পুলিশ। ঘটনাটি বেহালার। পুলিশ সূত্রে খবর, নবনালান্দার এই ছাত্রীর নাম সৃজনী দালাল। জানা গিয়েছে, সরস্বতী পুজোয় বন্ধুদের সঙ্গেই আন¨, হুল্লোড় করেছিল সে। কিন্তু পরের দিন পাড়ার সরস্বতী পুজোর ভাসানেও যেতে চেয়েছিল মেয়ে। কিন্তু তখন বকাবকি করেন মা। পড়তে বসার কথা বলেছিলেন। তাতেই চরম সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলে নবনালন্দা ßুñলের দশম শ্রেণির ওই ছাত্রী।
পুলিশ ও পরিবার সূত্রে জানা গিয়েছে, বেহালা বাসিন্দা দশম শ্রেণির ছাত্রী সৃজনী গত পরশু দিন পাড়ার সরস্বতী পুজোতে ছিল। বাড়ির লোক জানাচ্ছে, সারাদিন বন্ধুদের সঙ্গে বাইরেই ছিল সে। রাতে বাড়ি ফেরে। কিন্তু সেদিন আর তাঁরা কিছু বলেননি। পরের রাতেও পাড়ার সরস্বতী পুজোর ভাষণে যেতে চেয়েছিল সৃজনী। কিন্তু তার মা বকাবকি করেন ও ভাসানে যেতে দেননি। কারণ, সামনেই পরীক্ষা। তাই পড়তে বসতে বলেছিলেন। শুক্রবার দুপুরে মা ডাকলে সাড়া পাননি। গিয়ে দেখেন ঘরে দরজা বন্ধ রয়েছে। সন্দেহ হলে দরজা ভেঙে ভিতরে ঢুকে দেখেন সিলিং ফ্যানে গলায় ফাঁস লাগিয়ে ঝুলছে সৃজনী। তড়িঘড়ি তাকে বিদ্যাসাগর হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসকরা মৃত বলে ঘোষণা করেন। ইতিমধ্যে বেহালা থানার পুলিশের তরফ থেকে অস্বাভাবিক মৃত্যুর মামলার রজু হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *