রেলের ‘প্যান্ট্রি কার’ বদলে হল অন্তর্বাস

হাওড়া : দূরপাল্লার ট্রেনে ‘প্যান্ট্রি কার’ দেখতে অভ্যস্ত সকলেই। ‘প্যান্ট্রি কার’ থাকা মানেই দূরে সফররত যাত্রীরা ট্রেনে তৈরি করা খাবার খেতে পারবেন। তবে সেই ‘প্যান্ট্রি কার’ যদি ‘প্যান্টি কার’ অর্থাৎ অন্তর্বাস হয়ে যায়। তাতে বিড়ম্বনা বাড়ে বই কমে না। এমনই বিড়ম্বনার মুখে পড়েছে ভারতীয় রেল। আর তাই দেখে মানুষজন রেলের উপরে হাঁসাহাসি শুরু করেছেন। স্বভাবতই নববর্ষের প্রাক রাত্রে শিয়ালদহ স্টেশনে দাঁড়িয়ে ছিল ১২৯৮৭ আপ শিয়ালদহ-আজমের এক্সপ্রেস। এই ট্রেনের সঙ্গে ছিল প্যান্ট্রি কার। আর সেই প্যান্ট্রি কারের নামের প্লেটেই যত বিপত্তি। তাতে লেখা ‘প্যান্ট্রির’ স্থানে ‘প্যান্টি’। অর্থাৎ হারিয়ে গেছে একটি ‘আর’! আর এই একটি ইংরেজি শব্দই রীতিমতো মানে বদলে দিয়েছে শব্দের।

সেই ছবি ইন্টারনেটে ভাইরাল হতেই শুরু হয়েছে হাঁসির রোল। যা আর থামার নাম নিচ্ছে না। এই ‘ভুল’-এর কথা স্বীকার করেছে উত্তর-পশ্চিম রেল। উত্তর-পশ্চিম রেলের তরফে ‘একদিন’ দৈনিক পত্রিকা-কে জানানো হয়েছে ‘গতকাল দু’টি রেক থেকেই নাম প্লেট সরিয়ে নেওয়া হয়েছে। দুটি রেকে এই ভুল বানান ডিসপ্লে করা ছিল’। রেলের তরফে ভুল শুধরে নিয়ে ওই ট্রেন রওনা দেয় আজমের উদ্দেশ্যে। তবে, ভুল শোধরালেও নেট দুনিয়াতে সারা ফেলে দিয়েছে এই ছবি। অনেকে তাদের সোশ্যাল মিডিয়াতে পোস্ট করে বলছেন ‘লেজেন্ড হলে নজরে পড়বেই’। কেউ বা লিখেছেন এই নামের প্লেট যিনি লিখেছেন তিনি ‘অনেক বড় লেজেন্ড’।

অনেকে একে রেলের গাফিলতি বলেই দাবি করেছেন। তারা সরাসরি নর্থ ওয়েস্টার্ন রেলের উপর ক্ষোভ উগরে দিয়েছেন। একজন নেট পাড়ার নাগরিক তার ক্ষোভ উগড়ে দিয়ে লিখেছেন, ‘যেটা লেখা হচ্ছে সেটা লেখার পরে নজরদারি করার কোনও কর্মী নেই রেলের। খুবই অদ্ভূত ব্যাপার!’ তাই রেল কর্তৃপক্ষ এই ভুল ডিসপ্লে খুলে নিয়ে ‘ভুল’ হয়েছে বললেও তা মাফ করতে নারাজ নেটিজেনরা। তবে নববর্ষের প্রথম দিনে এই ধরণের কৌতুকের ঘটনা তারিয়ে তারিয়ে উপভোগ করছেন নেট পাড়ার বাসিন্দারা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

2 × 1 =