কেন্দ্র নাগরিকত্ব ইস্যু তুললেই মতুয়ারা বিরোধিতা করবে, হুঁশিয়ারি মমতাবালার

নিজস্ব প্রতবেদন, কাঁকসা: সাধারণ মানুষকে সমস্যায় ফেলা ছাড়া আর কোনও কিছুই করছে না বিজেপি। যতদিন বিজেপি সরকার নাগরিকত্ব ইস্যু তুলবে, ততদিন মতুয়া সম্প্রদায়ের মানুষ তার বিরোধিতা করবে বলে কাঁকসা থেকে ফের হুঁশিয়ারি দেন অল ইন্ডিয়া মতুয়া মহা সংঘের সংঘাধিপতি মমতাবালা ঠাকুর।
বুধবার বিকেলে কাঁকসার আইলা পাড়াতে শ্রীশ্রী হরিচাঁদ ঠাকুর এবং জগৎ মাতা শান্তি দেবীর মন্দির উদ্বোধন উপলক্ষে মতুয়া সম্প্রদায়ের মানুষদের সঙ্গে সাক্ষাৎ করে তাঁদের সমস্যার কথা শোনেন মমতা বালা ঠাকুর। মতুয়া সম্প্রদায়ের মানুষদের তিনি পাশে থাকার আশ্বাস দেন। এদিন সংবাদমাধ্যমকে তিনি জানান, বিজেপি সরকার সাধারণ মানুষকে কী ভাবে সমস্যায় ফেলা যায়, সেই পরিকল্পনা করছে। গত দশ বছর ধরে নথিপত্র জমা দিতে গিয়ে মানুষ বিভ্রান্ত হয়ে পড়েছে। কী ভাবে তারা শান্তি ভাবে বসবাস করবে সেই নিয়ে চিন্তায় পড়েছে সাধারণ মানুষ।
তাঁর দাবি, বিজেপি সরকার ফের নতুন করে সিএএ শুরু হওয়ার কথা ঘোষণা করেছে। কিন্তু এই বিষয়ে আজও তা কার্যকর হয়নি। বিজেপি শুধুমাত্র ভাঁওতাবাজি করে এবং ভয় দেখিয়ে চলেছে। কারণ সামনেই লোকসভা নির্বাচন। ফের বিজেপি নতুন করে স্লোগান তুলেছে ‘ভোটটা আমাদের দাও আমরা তোমাদের নাগরিকত্ব দেব’। কিন্তু মতুয়া সম্প্রদায়ের মানুষেরা বিজেপির ভাঁওতাবাজিতে কোনও মতেই পা দেবে না।
তাঁর দাবি, আগে বিল পাশ করুক ২০১৪ সালের ৩১ ডিসেম্বরের আগে থেকে যাঁরা ভারতে রয়েছেন, তাঁদের নাগরিকত্ব দেওয়া হোক। সেই দিন ধরে যদি নাগরিকত্ব দেওয়া হয় তবে তাতে তাঁরা রাজি হবেন। তবে শর্ত এটাই থাকবে এই বিল পাশ হলে কোনও রকম নাগরিকত্বের প্রমাণপত্র কোনও ভাবেই জমা নেওয়া হবে না। কারণ বর্তমানে জন্মের প্রমাণপত্র সহজে পাওয়া গেলেও আগে জন্মের প্রমাণপত্র পাওয়া যেত না। ফলে যার সন্তানদের জন্ম শংসাপত্র রয়েছে, তাঁদের পিতাদের বা পরিবারের প্রবীণদের জন্মের পরিচয়পত্র নেই। তা হলে তাঁদের কী হবে। তা¥রা তাঁদের জন্মের প্রমাণপত্র দেখাতে পারবেন না।
তিনি জানান, মতুয়া সম্প্রদায়ের মানুষেরা আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের পাশেই থাকবেন। কারণ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় চিরকাল মতুয়া সম্প্রদায়ের মানুষদের পাশে রয়েছেন এবং তাঁদের উন্নয়ন করে চলেছেন। তাঁদের আন্দোলনের সঙ্গে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও বারংবার প্রতিবাদ জানিয়েছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *