ইডি হেপাজত থেকেই স্ত্রীর মাধ্যমে বার্তা দিলেন কেজরিওয়াল

সক্রিয় রাজনীতি থেকে এতদিন নিজের স্ত্রী ও পরিবারকে দূরেই রাখতেন আপ সুপ্রিমো অরবিন্দ কেজরিওয়াল।  ভারতীয় রাজনীতিতে আপের উত্থান বিকল্প রাজনীতির স্বপ্ন দেখিয়ে। কেজরিওয়ালের মূল হাতিয়ারই ছিল পরিবারতন্ত্র এবং দুর্নীতির বিরোধিতা করা। অথচ সেই কেজরিওয়াল নিজেই এবার সেই একই অভিযোগে বিদ্ধ। নিজের স্ত্রীর মাধ্যমে ইডি হেপাজত থেকেই নিজের পাঠানো বার্তা জনগণের উদ্দেশ্যে পাঠালেন।

আবগারি দুর্নীতি মামলায় গ্রেপ্তার দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল ইডি-র হেপাজত থেকে বার্তা দিলেন অনুগামীদের। তাঁর স্ত্রী সুনীতি শনিবার কেজরির সেই লিখিত বার্তা পড়ে ভিডিও পোস্ট করেন সমাজমাধ্যমে।

আম আদমি পার্টি (আপ)-র প্রধান কেজরিওয়াল তাঁর দলের কর্মী-সমর্থকদের আশ্বস্ত করে জানিয়েছেন, কোনও জেল তাঁকে বেশি দিন ভিতরে রাখতে পারবে না। তিনি শীঘ্রই ফিরে আসবেন। সেই সঙ্গে অনুগামীদের উদ্দেশে তাঁর আবেদন, ‘আমার গ্রেপ্তারির জন্য আপনারা বিজেপির কর্মীদের প্রতি ঘৃণাবর্ষণ করবেন না। প্রতিটি মুহূর্ত দেশের সেবা করার জন্য উৎসর্গ করেছি। ভিতরে থাকি কিংবা বাইরে, মানুষের জন্য কাজ করে যাব। আমার জীবনে এমন কখনও ঘটেনি যে, প্রতিশ্রুতি পূরণ করতে ব্যর্থ হয়েছি। এ বারও হব না। যে সব অভ্যন্তরীণ ও বহিরাগত শক্তি দেশকে দুর্বল করার চেষ্টা করছে, তাদের বিরুদ্ধে আমার লড়াই চলবে।’

দুর্নীতির অভিযোগে দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী নিজে ইডির হেপাজতে। সুতরাং দুর্নীতির বিরুদ্ধে লড়াইকে হাতিয়ার হিসাবে ব্যবহার করাটা এর পর কঠিন হয়ে যাবে আপ সুপ্রিমোর জন্য। এবার সম্ভবত পরিবারতন্ত্রের অভিযোগেও বিদ্ধ হতে হবে কেজরিওয়ালকে। কারণ তাঁর অনুপস্থিতিতে তাঁর স্ত্রী সুনীতা কেজরিওয়ালকে এবার সক্রিয় রাজনীতিতে নামিয়ে দেওয়ার ইঙ্গিত দিয়ে দিল আপ। সুনীতা প্রকাশ্যে এসে জেল থেকে পাঠানো স্বামীর বার্তা আমজনতার উদ্দেশে শুনিয়ে গেলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *