চিকেন থেকে চিজ, চাটনির স্টাফিং-এ ইডলি হবে ‘ইয়াম্মি’

ইডলি নিশ্চই খেয়েছেন। কিন্তু পুর ভরা ইডলি খেয়েছেন কি! ইডলি মুখে দিলে ভেতর থেকে বেরিয়ে আসে গলে যাওয়া চিজ, মাংসের পুর কিম্বা নারকেলের চাটনি, তাহলে?

তাহলে দেরি না করে, খুব সহজে বানিয়ে ফেলুন স্টাফড ইডলি।

ইনস্ট্যান্ট ইডলি চাইলে করতে পারেন রাওয়া বা সুজির ইডলি।

রাওয়া ইডলি- এক কাপ সুজির সঙ্গে হাফ কাপ টক দই মেশান। দিন জল, স্বাদমতো নুন। ব্যাটারটা ভাল করে ফেটিয়ে আধ ঘণ্টা ঢাকা দিয়ে রাখুন। সুজি জল টেনে ফুলে উঠবে। তারপর তাতে দিন এক চামচ বেকিং সোডা অথবা মেশান ইনো। এতে ইডলি নরম ও স্পঞ্জি হবে। এরপর ইডলি স্ট্যান্ডে ঘি বা তেল লাগিয়ে হয় স্টিমে নয়তো মাইক্রোওভেনে ২ মিনিট দিলেই তৈরি হবে ইডলি। যদি ইডলির ছাঁচ না থাকে, তাহলেও হবে। প্রেসার কুকারে সামান্য জল দিয়ে একটা ছোট স্ট্যান্ড বসিয়ে নিন। প্রেসার কুকার গরম হয়ে গেলে ছোট স্টিলের বাটিতে তেল মাখিয়ে ইডলি ব্যাটার ঢেলে প্রেসার কুকারে বসিয়ে ঢাকনা দিয়ে দিন (সিটিটা খুলে দেবেন)। ১০ মিনিটে তৈরি হবে ইডলি।

স্টাফিং- চিকেন থেকে সুইট কর্ন, আলু, সবজি, পনির, নারকেলের রকমারি চাটনি, চিজ ইচ্ছেমতো স্টাফিং আপনি বানাতেই পারেন।  শুধু খেয়াল রাখবেন স্টাফিং-এ যেন কোনও বড় টুকরো না থাকে, আর সেটা যেন তরল না হয়ে যায়।

আলুর স্টাফিং-কড়াইতে সরষের তেলে শুকনো লঙ্কা, সরষে ফোড়ন দিন। কুঁচানো পেঁয়াজ, লঙ্কা, হাল্কা ভেজে দিয়ে দিন স্বাদমতো নুন, হলুদ। এবার সেদ্ধ আলু দিয়ে, গরম মশলা দিয়ে ভাল করে কষিয়ে নিন। দিয়ে দিন বাদাম ভাজাও। এবার ঠান্ডা হলে প্যাটির মতো করে নিন। ইডলির ছাঁচে কিছুটা ইডলি ব্যাটার দিয়ে আলুর প্যাটিটা বসিয়ে দিন। ওপর থেকে আরও এক চামচ ব্যাটার দিয়ে স্টাফিং ঢেকে দিন। তারপর স্টিম বা মাইক্রোওভেনে রান্না করলেই তৈরি স্টাফড ইডলি।

একই ভাবে চিকেন কিমা কষিয়ে রান্না করে স্টাফিং করুন। চাইলে শুধু চিজ কিউব দিয়ে দিয়ে স্টাফিং-এর সময়। ইডলিতে কামড় বসালেই ভেতর থেকে বেরিয়ে আসবে গলে যাওয়া চিজ।

নারকেল, কাঁচা লঙ্কা ধনেপাতা দিয়ে চাটনি বানিয়ে সেটারও স্টাফিং করতে পারেন। আর এভাবেই  ইডলি হতে পারে আপনার সিগনেচার ডিশ। এই গরমে ঝঞ্ঝাট ছাড়াই হয়ে যাবে ইডলি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

five + 4 =