উইম্বলডনেও নেই রজার ফেডেরার, জানালেন কোচ সেভেরিন

লন্ডন: রাফায়েল নাদাল  আবার ফিরেছেন ছন্দে। নোভাক জকোভিচ  ভ্যাকসিন বিতর্ক ভুলে সামনে তাকাতে চাইছেন। তাঁদের আর এক প্রতিদ্বন্দ্বী রজার ফেডেরার কবে কোর্টে ফিরবেন, তা এখনও অনিশ্চিত। হাঁটুতে অস্ত্রোপচারের পর রিহ্যাব শুরু করেছেন ২০টা গ্র্যান্ড স্লাম জেতা টেনিস তারকা। ভাবা হচ্ছিল, হয়তো উইম্বলডন থেকে আবার সবমহিমায় ফিরবেন তিনি। তা হওয়ার সম্ভাবনা ক্ষীণ তো বটেই, খানিকটা অসম্ভবও। ফেডেরারের চোটের যা হাল, তাতে অল ইংল্যান্ড ক্লাবে এ বার হয়তো দেখা যাবে না তাঁকে। গতবার উইম্বলডনের কোয়ার্টার ফাইনাল থেকে ছিটকে যাওয়ার পর আর কোর্টে নামতে পারেননি। আগের থেকে অনেকটাই ফিট হলেও এখনই টেনিস কোর্টে নামার মতো অবস্থায় নেই। আর কেউ নন, ফেডেক্সের কোচ সেভেরিন লুথিই বলেছেন এই কথা।

একটি ওয়েবসাইটকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে সুইস কোচ সেভেরিন বলেছেন, ‘ও এখনও রিহ্যাব পর্যায়ের মধ্যে দিয়েই যাচ্ছে। তবে এটা ওর কোনও থেরাপি চলছে, তা নয়। আল্ট্রাসাউন্ড বা আইস থেরাপি নয়। ওই পর্যায় পার করে এসেছে ফেডেরার। এই মুহূর্তে ও নিজেকে ফিট করার প্রক্রিয়ার মধ্যে দিয়ে যাচ্ছে। হাঁটু আর পায়ের মাসলের শক্তি নতুন করে ফিরিয়ে আনার চেষ্টা করছে। সেই সঙ্গে পুরো শরীরকে আগের মতো তৈরি করতে হচ্ছে। যাতে ম্যাচ খেলার ধকল নিতে পারে। এই মুহূর্তে কন্ডিশনিং প্রোগ্রামের মধ্যে দিয়ে যাচ্ছে ফেডেরার।’

বিশ্বের প্রাক্তন এক নম্বর টেনিস তারকা এপ্রিল-মে নাগাদ কোর্টে ফিরতে পারেন, এমনই শোনা গিয়েছিল। কিন্তু তাঁর পুরোপুরি ফিট হতে হয়তো আরও সময় লাগবে। ফেডেরার নিজেও কোন ঝুঁকি নিতে চাইছেন না। পুরোপুরি ফিট হয়েই কোর্টে ফিরবেন। তার একটা বড় কারণ হল, নিজেকে আবার চ্যাম্পিয়ন হিসেবে তুলে ধরতে চান তিনি। যদিও চল্লিশ পার করা টেনিস তারকা বেশি দিন খেলতে পারবেন কিনা, তা নিয়ে অনেকেই সন্দেহ প্রকাশ করছেন। টেনিস মহলের অনেকেই বলছেন, ফেডেরারের উচিত নিজের অবসর নিয়ে পরিকল্পনা শুরু করে দেওয়া। তবে নাছোড় ফেডেরার আর একবার নিজেকে পরখ করে দেখতে চান। তাই তাঁর স্ত্রী ও সুইৎজারল্যান্ডের প্রাক্তন টেনিস প্লেয়ার মির্কার তত্ত্বাবধানে কড়া ট্রেনিং করছেন।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

14 − 12 =