পুরুলিয়ার একাধিক হার্ড কোক কারখানায় দীর্ঘক্ষণ ইডির অভিযান

নিজস্ব প্রতিবেদন, পুরুলিয়া: বুধবার সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত দীর্ঘক্ষণ ধরে পুরুলিয়ার পারা বিধানসভার অন্তর্গত রঘুনাথপুর ২ নম্বর ব্লকের চেলিয়ামা, দাঁন্দুয়া গ্রাম সহ দাঁন্দুয়া গ্রামের অদূরে অবস্থিত একটি হার্ড কোক কারখানায় ও দুবড়ার একটি হার্ড কোক কারখানায় ইডির আধিকারিকরা একযোগে অভিযান চালান। ওই হার্ড কোক কারখানায় মুন্সির কাজ করা একাধিক ব্যক্তির সন্ধানেও ইডির আধিকারিকরা খোঁজ চালাতে পারা বিধানসভার রঘুনাথপুর ২ নম্বর ব্লকের অন্তর্গত চেলিয়ামা ও দাঁন্দুয়া গ্রামেও হানা দেন।
এদিন ওই দলটি বুধবার সকালে ঝাড়খণ্ড থেকে পশ্চিমবঙ্গের পুরুলিয়ার ঝাড়খণ্ড লাগোয়া পারা বিধানসভার রঘুনাথপুর ২ নম্বর ব্লকের দাঁন্দুয়া গ্রামের কাছে একটি হার্ড কোক ও দুবড়ার একটি হার্ড কোক কারখানায় অফিযান চালিয়ে একাধিক কর্মচারীর খোঁজ চালিয়েও না পেয়ে তাঁদের খোঁজে কর্মীদের বাড়ি দাঁন্দুয়া ও চেলিয়ামা গ্রামে পৌঁছে যান ইডির আধিকারিকরা।
ঝাড়খণ্ডের নম্বর প্লেট লাগানো আটটি গাড়ি এদিন একাধিক হার্ড কোক কারখানায় ছাপ্পা মারে। তদন্তকারী আধিকারিকরা হার্ড কোক কারখানার ভিতরে দীর্ঘক্ষণ ধরে কাগজপত্র সহ বিভিন্ন দিক খতিয়ে দেখেন। বিশেয সূত্রে জানা গিয়েছে, কয়েকদিন আগে ঝাড়খণ্ডের তেতুলিয়াতে একটি হার্ড কোক কারখানায় অফিযান চালিয়ে তিন হাজার মেট্রিক টন অবৈধ কয়লা উদ্ধার হয়েছিল। সেই ঘটনার তদন্তে নেমে সূত্র ধরে ইডি ঝাড়খণ্ড লাগোয়া পুরুলিয়ার পারা বিধানসভার একাধিক হার্ড কোক কারখানার সন্ধান পায় ও একযোগে সেই সব ভাটাগুলিতে এদিন অফিযান চালায়।
এদিন ইডির আধিকারিকেরা সাংবাদিকের প্রশ্নের কোনও উত্তর দিতে চাননি। তবে অভিযানের সময় দাঁন্দুয়া গ্রামের অদূরে অবস্থিত হার্ড কোক কারখানার এক কর্মচারীকে আটক করে দীর্ঘক্ষণ জিজ্ঞাসাবাদ করলেও, এদিন কেউ গ্রেপ্তার হয়নি এমনটাই সূত্র মারফত জানা গিয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *