তৃণমূলকে যাঁরা এনেছেন, তাঁরাই বিদায় করবেন, দাবি দিলীপ ঘোষের

নিজস্ব প্রতিবেদন, ভাতার: তৃণমূলকে যাঁরা এনেছেন, তাঁরাই বিদায় করবেন আগামী লোকসভা নির্বাচনে এমনটাই দাবি করলেন দিলীপ ঘোষ। তিনি শনিবার কালীমন্দিরে পুজো দিয়ে মায়ের কাছে বর্ধমানের শান্তি চেয়েছেন, সকল মানুষের সুখশান্তি প্রার্থনা করেছেন এবং প্রতিপক্ষদের যাতে সৎ বুদ্ধি হয় সেই প্রার্থনা করেন তিনি।
কালীমন্দিরে পুজো দিয়ে পূর্ব বর্ধমান জেলার ভাতারে শনিবার সকালে প্রচার শুরু করেন বর্ধমান দুর্গাপুর লোকসভা কেন্দ্রের বিজেপির প্রার্থী দিলীপ ঘোষ। এদিন সকালে বর্ধমানে প্রচার কর্মসূচি শেষ করে ভাতারে প্রবেশ করতেই বাইক নিয়ে র‌্যালি করে তাঁকে স্বাগত জানান বিজেপির কর্মী সমর্থকরা। এরপর তিনি এলাকার একটি কালীমন্দিরে পুজো দেন। সেখান থেকে বেরিয়ে ভাতার বাজারে একটি ম্যারেজ হলে দলীয় কর্মীদের নিয়ে বৈঠক করেন দিলীপ ঘোষ।
এদিন সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে দিলীপ ঘোষ বলেন, ‘রাজ্যে ইতিমধ্যে কেন্দ্রীয় বাহিনীর জওয়ানরা এসে গিয়েছেন, আরও হয়তো আসবে। তবে বুথ কেন্দ্রে কোন কেন্দ্রে কত আধা সেনা জওয়ান থাকবে তা সরকার ঠিক করে না।’ গত নির্বাচনে বহু বুথে কেন্দ্রীয় বাহিনীর জওয়ানরা ছিলেন না তা সত্ত্বেও বিজেপি ১৮টা সিট পেয়েছে। এবার নির্বাচনে আরও বেশি পরিমাণ সিট তাঁরা পাবেন বলে আশা করছেন।
তিনি বলেন, ‘সন্দেশখালি নিয়ে নতুন করে কিছু বলার নেই, যা ঘটনা ঘটেছে তা অত্যন্ত নিন্দনীয় এবং জঘন্য ঘটনা। সন্দেশখালিতে যাঁরা প্রতিবাদ জানিয়েছিলেন, সেই প্রতিবাদী মুখকেই তাঁরা এবার প্রার্থী করেছেন। সন্দেশখালির মানুষ ভোটের দিন তাঁদের উচিত জবাব দেবেন।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *