ঘাটালে বিজেপি কর্মীকে খুনের অভিযোগ, মৃতের পরিবারের সঙ্গে দেখা করতে গেলেন হিরণ

পশ্চিম মেদিনীপুর: খড়গপুর-২ ব্লকের বারবাশি এলাকায় ভারতীয় জনতা পার্টির শান্তনু ঘোড়ুই নামে এক কর্মীকে খুন করার অভিযোগ উঠেছে তৃণমূল কংগ্রেসের বিরুদ্ধে। এলাকাটি ঘাটাল লোকসভা কেন্দ্রের পিংলা বিধানসভা কেন্দ্রের অন্তর্গত হওয়ায় রবিবার মৃত কর্মীর পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে দেখা করতে যান বিজেপি প্রার্থী অভিনেতা হিরণ চট্টোপাধ্যায়। তিনি পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানান। মৃত ওই কর্মীর পরিবারের সদস্যদের অভিযোগ, বিজেপি প্রার্থীর সমর্থনে দেওয়াল লিখন সহ বিজেপি করার কারণে খুন করা হয়েছে শান্তনুকে।

মৃতের বাবার দাবি, তৃণমূলের পক্ষ থেকে বহুবার তাঁর ছেলেকে হুমকি দেওয়া হত। শনিবার দুপুরে খড়গপুর-২ ব্লকের বারবাশি এলাকায় একটি ধান জমি থেকে শান্তনু ঘোড়ুইয়ের মৃতদেহ উদ্ধার করেছিল পুলিশ। তারপরেই মৃতের পরিবার অভিযোগের আঙুল তোলে স্থানীয় তৃণমূল কর্মীদের দিকে। বিজেপির প্রার্থী হিরণ চট্টোপাধ্যায় অভিযোগ করেছেন, মৃত তৃণমূল কর্মীর মাথায় আঘাতের চিহ্ন ছিল। তার হাত দুটি বেঁধে ফেলা হয়েছিল।

পুলিশ জমি থেকে রক্তাক্ত মৃতদেহ তুলে অতি দ্রুত চাঁদমারি হাসপাতালে নিয়ে যায় এবং বাড়ির লোককে সই করতে চাপ দিতে থাকে। হিরণের অভিযোগ সন্দেশখালির মতোই এখানে জুলুম চলছে। খড়গপুর টাউন থানায় ৯ ঘণ্টা বসিয়ে রেখেও এফআইআর না নেওয়ার অভিযোগ তুলেছেন বিজেপি প্রার্থী হিরণ। যদিও এই অভিযোগ উড়িয়ে দিয়ে পিংলার তৃণমূল বিধায়ক অজিত মাইতি বলেন, পুলিশ একটি মৃতদেহ উদ্ধার করেছে। কি কারণে মৃত্যু হয়েছে তা সঠিক তদন্ত করে দেখতে দাবি করা হয়েছে। তবে বিজেপি খুনের দাবি করলেও ঘটনাটি খুনের ঘটনা নয় বলে আমরা মনে করি। মৃতদেহ নিয়ে বিজেপি রাজনীতি করতে চাইছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *