শাস্তির মুখে জার্মান টেনিস তারকা আলেক্সান্ডার জেরেভ

লন্ডন: অ্যাকাপুলকো চ্যাম্পিয়নশিপে আম্পায়ারের চেয়ারে টেনিস ব়্যাকেট দিয়ে সপাটে মেরে বিতর্কে জড়িয়েছিলেন। সেই আলেক্সান্ডার জেরেভকে বড়সড় শাস্তি দিল টেনিস গভর্নিং বডি। গত মাসেই এটিপি ৫০০-র ইভেন্ট অ্যাকাপুলকোতে মেজাজ হারাতে দেখা গিয়েছিল জার্মান টেনিস তারকাকে। বিশ্বের ৩ নম্বর টেনিস খেলোয়াড়কে কোনও ছাড় দিল না আন্তর্জাতিক টেনিস ফেডারেশন। ডাবলসের ম্যাচে জেরেভ ব্রাজিলের মার্সেলো জেলোকে সঙ্গে নিয়ে কোর্টে নেমেছিলেন। ৬-২, ৪-৬ (১০-৬) সেটে হারেন জেরেভরা। খেলার সময় একাধিকবার চেয়ার আম্পায়ারের সিদ্ধান্ত ক্ষোভ প্রকাশ করেছিলে জেরেভ। আর ম্যাচ শেষ হতেই র‍্যাকেট হাতেই তেড়ে যান আম্পায়ারের দিকে। চেয়ার আম্পায়ারের চেয়ারে বসিয়ে দেন একের পর এক ঘা।

আলেক্সান্ডার জেরেভকে ৮ সপ্তাহের জন্য নির্বাসিত করল টেনিস গভর্নিং বডি। একই সঙ্গে কটূক্তির জন্য ২০ হাজার ডলার এবং অখেলোয়াড়চিত আচরণের জন্য আরও ২০ হাজার ডলার ফাইন করা হয়। পুরস্কার মূল্যের ৩১ হাজার ডলারও জরিমানা করা হয়। এবার তার সঙ্গে ৮ মাসের নির্বাসন আর ২৫ হাজার ডলার জরিমানা করা হল জেরেভকে।

এই আচরণ মোটেই রেয়াত করেনি টুর্নামেন্ট কর্তৃপক্ষ। মেক্সিকোতে এই ঘটনার পরই টুর্নামেন্ট থেকে বহিস্কার করা হয় জার্মান তারকাকে। সিঙ্গেলসে নামার সুযোগ থাকলেও তাঁকে কোর্টে নামার সুযোগ দেয়নি টুর্নামেন্ট কতৃপক্ষ। ফিরে আসছে অস্ট্রেলিয়ার তারকা নিক কিরঘিয়সের শাস্তি প্রসঙ্গ। অখেলোয়াড়চিত আচরণের জন্য ১৬ সপ্তাব নির্বাসনে পাঠানো হয়েছিল নিক কিরঘিয়সকে। সঙ্গে সব মিলিয়ে প্রায় ২ লক্ষ মার্কিন ডলার জরিমানা করা হয়েছিল।

 

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

four × one =