রঞ্জি ট্রফিতে মরসুমের প্রথম ম্যাচে এখনও অবধি অ্যাডভান্টেজ বাংলা

লোয়ার অর্ডারে ভরসা অভিষেক, উইকেটের খাতা খুললেন সামির ভাই। বিশাখাপত্তনমে অন্ধ্র প্রদেশের বিরুদ্ধে অ্যাওয়ে ম্যাচে বাংলার ব্যাটাররা অনবদ্য পারফর্ম করেছেন। দ্বিতীয় দিন নজর কাড়লেন বোলাররাও। ম্যাচের এখনও দু-দিন বাকি। বাংলা শিবিরে মাথাব্যাথা এখন প্রতিপক্ষ অধিনায়ক হনুমা বিহারি। দিনের শেষে ক্রিজে রয়েছেন তিনি। টেস্ট ক্রিকেটের অভিজ্ঞতা থাকা হনুমাকে ফেরালে ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ অনেকটাই চলে আসবে বাংলার হাতে।

প্রথম দিন টস জিতে ব্যাটিং নিয়েছিলেন বাংলা অধিনায়ক মনোজ তিওয়ারি। ২৮৯-৪ স্কোরে দ্বিতীয় দিনের খেলা শুরু করে বাংলা। অধিনায়ক মনোজ তিওয়ারি ৩২ রান করেন। তবে প্রথম ইনিংসে বাংলাকে ৪০০-র গণ্ডি পেরোতে সহযোগিতা করেন কিপার ব্যাটার অভিষেক পোড়েল। গত মরসুমেও ভরসা দিয়েছিলেন এই তরুণ ক্রিকেটার। এ বার প্রথম ম্যাচেই নজর কাড়লেন। টেল এন্ডারদের সঙ্গে ব্যাটিং সহজ ছিল না। বাংলা ইনিংসের শেষ উইকেট হিসেবে আউট হন অভিষেক পোড়েল। তাঁর ৭০ রানের অনবদ্য ইনিংসে বোর্ডে ৪০৯ রান তোলে বাংলা।

অন্ধ্র প্রদেশের ইনিংস দুর্দান্ত শুরু হয়। উইকেট নেওয়ার চাপ বাড়তে থাকে বাংলা শিবিরে। বাংলা বোলাররা অবশ্য ঘুরে দাঁড়ায়। দ্বিতীয় দিনের শেষে ৩ উইকেট হারিয়ে ১১৯ রান তুলেছে অন্ধ্র প্রদেশ। বাংলা এখনও ২৯০ রানে এগিয়ে। ৬৪ রানে অন্ধ্রর ওপেনিং জুটি ভাঙেন বাঁ হাতি স্পিনার প্রদীপ্ত প্রামাণিক। বাংলাকে দ্বিতীয় সাফল্য দেন অভিষেক ম্যাচে নামা মহম্মদ কাইফ। সাদা বলের ক্রিকেটে বাংলার জার্সিতে নজর কেড়েছেন মহম্মদ সামির ভাই। লাল বলেও উইকেটের খাতা খোলেন অন্ধ্রর প্রশান্ত কুমারকে ফিরিয়ে। শেষ বেলায় আকাশ দীপ ফেরান শেখ রশিদকে। এই উইকেটের সঙ্গেই দ্বিতীয় দিনের খেলা সমাপ্ত হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *