পুলিশ এবং স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের সাহায্যে বাড়ি ফিরলেন কেরলের ব্যক্তি

নিজস্ব প্রতিবেদন, পূর্ব বর্ধমান: ভিন রাজ্য থেকে এসে সর্বস্বান্ত হয়ে পূর্ব বর্ধমান জেলা পুলিশ এবং স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের সহযোগিতায় বাড়ি ফিরলেন মোহিত গুপ্ত নামে এক ব্যক্তি।
হিমাচলপ্রদেশের বাসিন্দা পেশায় সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ার মোহিত গুপ্তরঠিকানা কেরলের কান্নুরে। বর্ধমান জেলায় এসে একটি টোটো চালক তাঁর সবকিছু নিয়ে চলে যান বলে তাঁর অভিযোগ। এদিন মোহিতবাবু বর্ধমান বাসস্ট্যান্ডে নেমে একটি টোটোতে বসে স্টেশন আসার উদ্দেশ্যে। এরপর রাস্তায় শৌচালয়ের খোঁজ করতে থাকেন। মোহিতবাবুর দাবি, ওই সময় তা¥র ব্যাগ ওই টোটোর মধ্যেই রাখা ছিল এবং টোটোতে আর কেউ ছিল না। পরে টোটোটিকে দাঁড়াতে বলে তিনি শৌচালয় থেকে ফিরে এসে দেখেন টোটোটি নেই এবং তাঁর ব্যাগও নেই।
তাঁর দাবি, এমতবস্থায় সকাল থেকেই তিনি দিশাহারা হয়ে ঘুরে বেড়াতে থাকেন সম্পূর্ণ অজানা এক জায়গায় এবং তাঁর কাছে ন্যূনতম অর্থ ছিল না কিছু খাওয়ার জন্যও। মোবাইল ফোন সহ সবকিছু ওই ব্যাগের মধ্যে ছিল। পরে পূর্ব বর্ধমান সদর থানায় এই বিষয়ে যোগাযোগ করেন এবং সম্পূর্ণ বিষয়টি প্রাথমিক ভাবে একটি জেনারেল ডায়েরি করে জানান পূর্ব বর্ধমান সদর থানায়।
এই সমস্ত বিষয়ের জন্য পূর্ব বর্ধমান সদর থানার ভারপ্রাপ্ত আধিকারিক সুখময় চক্রবর্তী এবং অন্যান্য পুলিশ অফিসার এবং কর্মীরা তাঁকে আইনের দিক সাহায্য করেন বলে তিনি তাঁর দাবি। তিনি আরও দাবি করেন, এই সময় বর্ধমান সহযোদ্ধা নামে একটি সংগঠন মোহিতবাবুকে কেরালার উদ্দেশ্যে রওনা হওয়ার জন্য আর্থিক ভাবে এবং রাস্তায় খাওয়ার জন্য খাদ্য সামগ্রী, জল, ইত্যাদি কিনে তাঁকে স্টেশনে পৌঁছে দেয়। এ বিষয়ে বর্তমান জেলা পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, একটি সাধারণ ডায়েরি হয়েছে এবং মোহিত গুপ্তের হারানো ব্যাগ যাতে উদ্ধার হয় তার জন্য তারা তদন্ত শুরু করেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *