আরএসএস নেতা খুনে পিএফআইয়ের ১৫ সদস্যকে মৃত্যুদণ্ড

নিষিদ্ধ সংগঠন পিএফআইয়ের ১৫ সদস্যকে মৃত্যুদণ্ড দিল কেরলের আদালত। স্থানীয় আরএসএস নেতা রঞ্জিত শ্রীনিবাসনকে খুনের দায়ে এই সাজা পেয়েছে ১৫ জন। উল্লেখ্য, ২০২১ সালের ডিসেম্বর মাসে নিজের বাড়িতে খুন হয়েছিলেন রঞ্জিত।সেই হত্যার সঙ্গে জড়িত থাকার দায়ে এই ১৫ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছিল। ২০ জানুয়ারি, ১৫ জনকেই দোষী সাব্যস্ত করেছিল মাভেলিকারার অতিরিক্ত দায়রা আদালত। এদিন তাদের মৃত্যুদণ্ড দিল আদালত।

আদালত জানিয়েছে, আসামীদের মধ্যে আটজন সরাসরি হত্যার সঙ্গে জড়িত ছিল। বাকি আসামীদের এই অপরাধের ষড়যন্ত্রে সামিল থাকার জন্য দোষী সাব্যস্ত করা হয়। সাজাপ্রাপ্ত এই আটজন হল – নিজাম, আজমল, অনুপ, মহম্মদ আসলাম, সালাম, আব্দুল কালাম, সফরউদ্দিন, মুনশাদ, জাজিব, নওয়াজ, শেমির, নাজির, জাকির হুসেন, শাজি এবং শামনাজ।

শ্রীনিবাসনের মা, স্ত্রী এবং কন্যার সামনেই হামলাকারীরা তাঁকে নির্মমভাবে হত্যা করেছিল। পিএফআই-এর মূল সংগঠন এসডিপিআই-এর রাজ্য সম্পাদক কেএস শানের হত্যার প্রতিশোধ হিসেবেই এই হত্যা বলে দাবি পুলিশের। ১৮ ডিসেম্বর আলাপুঝার মান্নানচেরিতে তার উপর মারাত্মক হামলা হয়েছিল এবং তাতে তার মৃত্যু হয়।

আলাপুঝার সহকৈারী পুলিশ সুপার এনআর জয়রাজ এই ঘটনার তদন্ত করেন। ১,০০০টিরও বেশি নথি এবং ১০০টিরও বেশি অন্যান্য প্রমাণ-সহ চার্জশিট দাখিল করে তাঁর নেতৃত্বাধীন তদন্তকারী দল। সেই সব প্রমাণের মধ্যে ছিল আঙুলের ছাপ, ফরেন্সিক অনুসন্ধান রিপোর্ট, সিসিটিভি ফুটেজ এবং গুগল ম্যাপের সাহায্য নিয়ে অপরাধীদের গতিবিধির মানচিত্র ইত্যাদি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *