মুম্বই ও রঞ্জি ট্রফি খেতাবের মাঝে ১০ উইকেট

দ্য ৪২! মুম্বইয়ের ৪২তম রঞ্জি ট্রফি জয় যেন সময়ের অপেক্ষা। যদিও প্রথম ইনিংসের পর এতটা আত্মবিশ্বাসী দেখায়নি মুম্বই শিবিরকে। ওয়াংখেড়ে স্টেডিয়ামে গ্রিনটপ। হতাশার ব্যাটিংয়ে প্রথম ইনিংসে মাত্র ২২৪ রানেই শেষ। এই অবধি পৌঁছনোও কঠিন ছিল মুম্বইয়ের কাছে। শার্দূল ঠাকুর ৬৯ বলে ৭৫ রানের বিধ্বংসী ইনিংসে ভরসা দিয়েছিলেন। তবে তৃতীয় দিনের শেষে ৯৯.৯৯ শতাংশ নিশ্চিত, মুম্বই রঞ্জি চ্যাম্পিয়ন হচ্ছে।

বোলাররা সুবিধা গড়ে দিলেও তার সুযোগ নিতে ব্যর্থ হয়েছিলেন বিদর্ভ ব্যাটাররা। মাত্র ১০৫ রানেই শেষ হয়েছিল বিদর্ভর প্রথম ইনিংস। কোনও ব্যাটারই উল্লেখযোগ্য অবদান রাখতে পারেননি। পিচে ঘাস থাকলেও ওয়াংখেড়েতে স্পিনাররা সুবিধা পেয়ে থাকেন। মুম্বইয়ের হয়ে তিনটি করে উইকেট নিয়েছিলেন কেরিয়ারের শেষ ম্যাচ খেলতে নামা ধবল কুলকার্ণি এবং শামস মুলানি ও তনুশ কোটিয়ান। প্রথম ইনিংস লিড, মুম্বইকে অ্যাডভান্টেজে রেখেছিল।

মুম্বইয়ের দ্বিতীয় ইনিংসে অনবদ্য পারফরম্যান্স। দুই ওপেনার ভরসা দিতে ব্যর্থ। তবে তিনে নামা মুশির খান ১৩৬ রান করেন। টানা ব্যর্থতার পর হাফসেঞ্চুরি করেন অধিনায়ক অজিঙ্ক রাহানে (৭৩)। শ্রেয়স আইয়ার (৯৫) সেঞ্চুরির কাছ থেকে ফেরেন। লোয়ার অর্ডারে হাফসেঞ্চুরি শামস মুলানির। ৪১৮ রানে শেষ হয় মুম্বইয়ের দ্বিতীয় ইনিংস। ম্যাচ জিততে বিদর্ভর চাই ৫৩৮ রান! তৃতীয় দিনের শেষে বিনা উইকেটে ১০ রান তুলে নিয়েছে তারা। ফাইনালের মঞ্চে এত বড় রান তাড়া করা কার্যত অসম্ভব। ম্যাচের এখনও দু-দিন বাকি। মুম্বইয়ের চাই ১০ উইকেট। জয় যেন সময়ের অপেক্ষা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

four + three =