কথা কাটাকাটির জের, আচমকা গায়ে আগুন দিয়ে দৌড় তরুণীর

কলকাতা: সারা শরীর জ্বলছে। রাস্তায় চিত্কার করতে করতে ছুটছেন তরুণী।এমনই ভয়াবহ দৃশ্যের সাক্ষী রইল শহর কলকাতা।

এক যুবকের সঙ্গে কথা কাটাকাটি চলছিল তরুণীর। তা চাক্ষুস করেছিলেন অনেকেই। তা যে ভয়ঙ্কর হয়ে উঠবে ভাবেননি কেউ। আচমকা রাগের মাথায় নিজের গায়েই আগুন লাগিয়ে দেন তরুণী। সকলে দেখেন,  সর্বাঙ্গ জ্বলছে আগুনে। আর্তনাদ করতে করতে দৌড়ে চলেছেন তিনি। স্বামী হতভম্ব। রবিবার রাতে বেহালার পর্ণশ্রী এলাকায় এমন ঘটনাকে কেন্দ্র করে জোর শোরগোল। পর্ণশ্রী থানার পুলিশ ওই তরুণীকে উদ্ধার করে। হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয় তাঁকে। তরুণীর স্বামীকে আটক করেছে পুলিশ।

ঠিক কী কারণে এমন চরম পদক্ষেপ ?  অগ্নিদগ্ধ বধূর দাবি, তাঁর স্বামী উত্তম গায়েনের আগেও বিয়ে করেন। বিবাহিত জেনেও দ্বিতীয়বার গত অক্টোবরে উত্তমকে বিয়ে করেন তিনি। অভিযোগ, ভালভাবে সংসার করার পরিকল্পনা ছিল না উত্তমের। সে কারণেই স্ত্রীর ব্যক্তিগত ছবি মোবাইলে তুলে রেখেছিল উত্তম। ইদানীং সেই ছবি উত্তম ও তার পরিবারের লোকজন ভাইরাল করে দেওয়ার হুমকি দেয়। তা নিয়ে বচসা চলছিল। রবিবার বেহালা দেবদারু ফটকের ক্লাবের মাঠে স্বামীর সঙ্গে বচসা শুরু হয়।  তারপর হঠাৎ নিজের গায়ে নিজেই আগুন লাগিয়ে দেন ওই বধূ।

জ্বলন্ত অবস্থায় রাস্তায় দৌড়তে থাকেন ওই গৃহবধূ। খাস কলকাতার রাস্তায় এমন ঘটনা দেখে কার্যত আতঙ্কিত হয়ে পড়েন স্থানীয়রা। তারা তড়িঘড়ি বেহালা পর্ণশ্রী থানায় খবর দেয়। পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছয়। ততক্ষণে অবশ্য স্থানীয়রাই চটের বস্তার সাহায্যে আগুন নেভান। স্বাভাবিকভাবেই প্রশ্ন উঠেছে প্রথম স্ত্রী থাকতে দ্বিতীয় বিয়েতে সম্মিত কেন? কেনই বা স্ত্রীর ব্যক্তিগত মুহূর্তের ছবি ক্যামেরাবন্দি করে ব্ল্যাকমেল করার চেষ্টা? তারই উত্তর খুঁজছে পুলিশ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

four × two =