স্ত্রীর অশ্লীল ছবি ভাইরাল  করার প্রতিবাদ! মারধরে মৃত্যু হল স্বামীর, পলাতক অভিযুক্ত

স্ত্রীর অশ্লীল ছবি ভাইরাল  করার প্রতিবাদ জানাতে গিয়ে মারধর খেয়ে মৃত্যু হল এক ব্যক্তির। মৃতের নাম রামশঙ্কর তিওয়াড়ি। ঘটনাটি ঘটেছে কলকাতার দক্ষিণ বন্দর থানা এলাকার ভূকৈলাস রোডে। আহত অবস্থায় হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পথে মৃত্যু হয় ওই ব্যাক্তির। ঘটনার পর থেকেই পলাতক অভিযুক্ত সেই প্রতিবেশী। অভিযুক্তের বিরুদ্ধে অনিচ্ছাকৃত খুনের মামলা দায়ের করেছে মৃতের পরিবার।
পুলিশ জানিয়েছে, ঘটনার সূত্রপাত দেড় বছর আগে। সে সময় রামশঙ্কর তিওয়াড়ি  প্রতিবেশী বশিষ্ঠ সিংকে লুকিয়ে স্নানাগারে তাঁর স্ত্রীর স্নানের ছবি ক্যামেরাব¨ি করতে দেখেছিলেন। বিষয়টি নিয়ে তখনই দুই পরিবারের মধ্যে বড় ধরনের গোলমাল হয়। তবে এলাকার বাসিন্দাদের মধ্যস্থতায় গোলমাল থামে। বাসিন্দাদের চাপে বশিষ্ঠ তার মোবাইল থেকে ছবি ও ভিডিওগুলো মুছে ফেলে।
 কয়েকদিন আগে রামশঙ্করের ছেলের মোবাইলে ভাইরাল হওয়া একটি ভিডিও পাঠান তাঁরই এক পরিচিত। ভিডিওতে ওই তরুণ বাথরুমে তাঁরই মায়ের স্নানের দৃশ্য দেখতে পান। সেই ভিডিওটি তাঁর বাবাকে দেখান। রামশঙ্করের  অভিযোগ, ফের বশিষ্ঠ লুকিয়ে নিজের মোবাইলে তাঁর স্ত্রীর অশ্লীল ভিডিও তুলে তা এলাকার বাসিন্দাদের মধ্যে ভাইরাল করেছে।শুক্রবার রামশঙ্কর তাঁর ছেলেকে নিয়ে প্রতিবেশী বশিষ্ঠর বাড়িতে গিয়ে তাঁর এই কীর্তির প্রতিবাদ জানান। ভাইরাল হওয়া ছবিটি দেখিয়ে প্রশ্ন করলে প্রথমে সে অস্বীকার করে। পরে উদ্ধত হয়ে রামশঙ্করকে মারধর করতে শুরু করেন বশিষ্ঠ। রামশঙ্করের ছেলে বাধা দিতে গেলে তাকেও মারধর করা হয় বলে অভিযোগ। মারধরের কারণে রামশঙ্করের বুক ও মাথায় চোট লাগে। অত্যন্ত অসুস্থ ও আহত অবস্থায় তাঁকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। হাসপাতালে যাওয়ার পথেই মৃত্যু হয় ওই রামশঙ্করের। হাসপাতালে পৌঁছলে চিকিৎসকরা তাঁকে মৃত বলে ঘোষণা করেন। পরিবারের পক্ষ থেকে দক্ষিণ বন্দর থানায় অনিচ্ছাকৃত খুনের মামলা দায়ের করা হয়। ঘটনার পর থেকে অভিযুক্ত পলাতক। তার সন্ধান চলছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *