বক্সিং ডে টেস্টের প্রস্তুতি শুরু করে দিলেন বিরাট

হঠাৎই দল ছাড়ায় উদ্বেগ তৈরি হয়েছিল। বোর্ডকে আগেই জানিয়ে রেখেছিলেন বিরাট কোহলি। ব্যক্তিগত কাজে সাময়িক ছুটি নিয়েছিলেন। দলের সঙ্গে যোগ দিয়ে বক্সিং ডে টেস্টের প্রস্তুতিও শুরু করে দিলেন বিরাট কোহলি। সেঞ্চুরিয়নে ২৬ ডিসেম্বর থেকে প্রথম টেস্ট। জোহানেসবার্গে ছিল টিম ইন্ডিয়া। শনিবারই জো’বার্গ থেকে সেঞ্চুরিয়নে পৌঁছে গিয়েছিলেন রোহিত, অশ্বিনরা। আজ থেকে শুরু হল বক্সিং ডে টেস্টের প্রস্তুতি। আর তাতে যোগ দিলেন বিরাট কোহলিও।

স্থানীয় সময় সকাল সাড়ে ৯টা থেকে প্র্যাক্টিস করার কথা ছিল ভারতের। সেই অনুযায়ী প্রস্তুতিতে নেমে পড়ে ভারতীয় দল। রবিচন্দ্রন অশ্বিন, শুভমন গিল, রোহিত শর্মা, বিরাট কোহলিরা ওয়ার্ম আপ সেড়ে নেন। ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে টেস্টে শুভমন গিল তিন নম্বরে ব্যাট করেছিলেন। এ প্রসঙ্গে ক্যাপ্টেন রোহিত শর্মা জানিয়েছিলেন, শুভমন নিজেই তিনে ব্যাটিংয়ের ইচ্ছা প্রকাশ করেছিল। রাজ্য দলে তিন-চারে ব্যাটিং করায় এই পজিশন তাঁর প্রিয় বলে জানিয়েছিলেন শুভমন। যদিও তিনে ব্যাট করে সাফল্য আসেনি। এ দিন কোচ রাহুল দ্রাবিড়ের সঙ্গে দীর্ঘ সময় কথা বলতে দেখা যায় শুভমনকে।

বিরাট কোহলি টিমের সঙ্গে যোগ দিয়েছেন। তবে এ দিনই অনুশীলনে নমে পড়বেন, এমন প্রত্যাশা হয়তো ছিল না। এই সিরিজ নিয়ে বিরাট কতটা সিরিয়াস পরিষ্কার। দক্ষিণ আফ্রিকার মাটিতে বারবার চেষ্টা করেও টেস্ট সিরিজ জিততে পারেনি ভারত। গত সফরে বিরাটের নেতৃত্বে প্রথম টেস্ট জিতে সিরিজে এগিয়েছিল ভারত। দ্বিতীয় ম্যাচে খেলতে পারেননি বিরাট। তৃতীয় ম্যাচে তিনি ফিরলেও সিরিজ নির্ণায়ক ম্যাচে হার। সেঞ্চুরিয়নের নেটে দীর্ঘ সময় ব্যাটিং প্রস্তুতি সারেন।

দক্ষিণ আফ্রিকার পিচে সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ বাউন্স। অস্ট্রেলিয়ার পিচে বাউন্স থাকলেও তা ‘বিশ্বাসযোগ্য’। অর্থাৎ কোথায় বল পড়ছে, সেই অনুযায়ী বাউন্স আন্দাজ করা যায়। দক্ষিণ আফ্রিকায় বাউন্স হেরফের হয়। নেট প্র্যাক্টিসে মূলত শর্ট পিচ ডেলিভারিতেই বেশি জোর দিলেন বিরাট কোহলি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *