সুভাষ সরকারকে ঝাঁটা-গোবর জলে বিদায় করার নিদান তৃণমূল নেতার

নিজস্ব প্রতিবেদন, বাঁকুড়া: ফের প্রকাশ্য মঞ্চ থেকে বাঁকুড়ার সাংসদ তথা কেন্দ্রীয় শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী সুভাষ সরকার ঝাঁটা ও গোবর জল দিয়ে বিদায় করার নিদান দিয়ে বিতর্কে জড়ালেন ছাতনা পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি বঙ্কিম মিশ্র। রবিবার বিকেলে বাঁকুড়ার ছাতনা ব্লকের ঘোষেরগ্রাম গ্রাম পঞ্চায়েতে পথশ্রী প্রকল্পের রাস্তার উদ্বোধনে গিয়ে এই বক্তব্য রাখেন বঙ্কিম মিশ্র। বিজেপির পালটা কটাক্ষ সাংসদকে নয়, সন্দেশখালির ঘটনার পর তৃণমূল নেতাদের প্রতি ওই আচরণ করবেন গ্রামের মানুষ।
বিভিন্ন সভামঞ্চ থেকে বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন নিদান দিয়ে বারেবারে বিতর্কে জড়িয়েছেন ছাতনা পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি বঙ্কিম মিশ্র। এবার লোকসভা নির্বাচনের মুখে সরাসরি বাঁকুড়ার সাংসদ তথা কেন্দ্রীয় শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী সুভাষ সরকার তাঁর আক্রমণের লক্ষ্য হলেন। রবিবার ঘোষেরগ্রাম এলাকায় পথশ্রী প্রকল্পের রাস্তার উদ্বোধনে গিয়ে বঙ্কিম মিশ্র বলেন, ‘ছলনা করে ভোট নিয়ে গিয়ে গত পাঁচ বছরে সুভাষ সরকার আপনি কী করেছেন এই প্রশ্ন তুলতে হবে। ফের ভোটের সময় এসে আবার এই করব সেই করব বলছে। এবারে তাঁকে বাড়িতে ঢুকতে দেবেন না। বাড়ির মহিলারা ঝাঁটা নিয়ে দাঁড়িয়ে থাকবেন। সুভাষবাবু এলাকায় এলে তাঁকে গোবর জল দিয়ে বিদায় করে দেবেন।’
পরে বঙ্কিম মিশ্র নিজের বক্তব্যের সমর্থনে বলেন, ‘এই হুঁশিয়ারি আমার নয়, এলাকার মানুষের হুঁশিয়ারি। যে সুভাষ সরকারকে ভোট দিয়ে মানুষ জিতিয়েছিল সেই সুভাষ সরকার একশো দিনের প্রকল্পে ও আবাস প্রকল্পের টাকা বন্ধ করে দিয়েছেন। তাই এলাকার মানুষ ক্ষিপ্ত। সেকথাই বক্তব্যে তুলে ধরা হয়েছে।’ তৃণমূল নেতা তথা ছাতনা পঞ্চায়েত সমিতির এহেন বক্তব্যের কড়া প্রতিক্রিয়া জানিয়েছে বিজেপি।
বিজেপির দাবি, তৃণমূল নেতাদের এমন কটূক্তিতে তৃণমূল দলের অন্দরে তাঁদের ওজন বৃদ্ধি পেতে পারে কিন্তু মানুষ তা ভালো ভাবে নেয় না। সন্দেশখালির ঘটনার পর বিজেপি নেতাদের নয় তৃণমূল নেতাদের এভাবেই ঝাঁটা আর গোবরজল নিয়ে তাড়া করে বেড়াবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *