ঘুড়ির প্যাঁচে পুলিশের ড্রোন পড়ল মাটিতে

নিজস্ব প্রতিবেদন, শ্রীরামপুর: শ্রীরামপুরে পৌষ সংক্রান্তিতে ঘুড়ি ওড়ানোয় নজরদারি। পৌষ সংক্রান্তিতে ঘুড়ি ওড়ানোর রেওয়াজ প্রাচীন। শ্রীরামপুর রেল ব্রিজের ওপর সুতো জড়িয়ে দুর্ঘটনার শিকার হয়েছেন অনেকেই। তাই সতর্ক ছিল পুলিশ। পৌষ সংক্রান্তিতে চিনা সুতোর ব্যবহার হচ্ছে কিনা, ঘুড়ি ওড়াতে কেউ নিয়ম ভাঙছে কি না, তা দেখতে ড্রোন ক্যামেরা উড়িয়ে নজরদারি চালাচ্ছিল শ্রীরামপুর থানার পুলিশ। সেই ড্রোনকেই প্যাঁচে ফেলে ভোকাট্টা করে দেয় ঘুড়ি উড়িয়েরা।
শ্রীরামপুর পাঁচবাবুর বাজার, রেল ব্রিজের ও™র ঘুড়ির প্যাঁচ খেলা চলছিল। সেই প্যাঁচে পড়ে পুলিশের ড্রোন মুখ থুবড়ে পড়ে মাটিতে। ঘুড়ি ওড়াচ্ছিলেন এক ব্যক্তি, তিনি বলেন, ‘পৌষ সংক্রান্তি উপলক্ষে ঘুড়ি ওড়ানোর রেওয়াজ আছে। আমরা প্রতি বছর ঘুড়ি ওড়াই। কটন সুতো ব্যবহার করি। কিন্তু অনেকেই আছে চিনা মাঞ্জার সুতো ব্যবহার করে, যা থেকে দুর্ঘটনা ঘটে। সচেতন হওয়া জরুরি। না হলে মানুষের বিপদ হতে পারে।’
শ্রীরামপুর পুরসভার কাউন্সিলর গৌরমোহন দে বলেন, ‘পুলিশ ড্রোন উড়িয়ে নজরদারি চালাচ্ছিল। কিছু ছেলে সেই ড্রোনকেই প্যাঁচে ফেলে দেয়। আমরা চাই মানুষ সচেতন হোক। ছোট ছেলেরা জানেই না হয়তো কোনটা ভালো কোনটা খারাপ। যেখানে চিনা সুতো বিক্রি হয়, সেই জায়গায় পুলিশ অভিযান চালানো উচিত।’ উল্লেখ্য, রবিবারই শেওড়াফুলি বাজারে অভিযান চালিয়ে বেশ কিছু চিনা সুতো বাজেয়াপ্ত করেছে শ্রীরামপুর থানার পুলিশ। ঘুড়ির নাইলন সুতো বিক্রেতাদের বিরুদ্ধে আইনত ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *