মানবিক মুখ পশ্চিম বর্ধমান জেলা তৃণমূল সভাপতির

নিজস্ব প্রতিবেদন, দুর্গাপুর: মানবিক মুখ পশ্চিম বর্ধমান জেলা তৃণমূল সভাপতির। পথ দুর্ঘটনায় গুরুতর জখম ২ ডিওয়াইএফআই কর্মীকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করলেন। জমা করলেন প্রাথমিক টাকাও। হাসপাতালে দাঁড়িয়ে থেকে চিকিৎসার তদারকি করে পরিবারের পাশে থাকার আশ্বাসও দিলেন জেলা তৃণমূলের সভাপতি।
রবিবার রানিগঞ্জে ব্যক্তিগত কাজ সেরে গৌতম রুইদাস ও সঞ্জয় রুইদাস বাইক নিয়ে ১৯ নম্বর জাতীয় সড়ক ধরে মুচিপাড়ার বাড়িতে ফিরছিলেন। তখনই প্রচণ্ড গতিসম্পন্ন অবস্থায় একটি ১২ চাকার ট্রাক নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ওই বাইকে ধাক্কা মারে। গৌতম রুইদাসের পায়ের ওপর দিয়ে চলে যায় ট্রাক। যন্ত্রণায় ছটফট করতে থাকেন তিনি। সঞ্জয় রুইদাসও অল্পবিস্তর আহত হন। এই দু’জনকে জাতীয় সড়কের ওপর পড়ে থাকতে দেখে পশ্চিম বর্ধমান জেলা তৃণমূলের সভাপতি নরেন্দ্রনাথ চক্রবর্তীকে খবর দেন তাঁর মেয়ে।
আসানসোলের নিঘা এলাকায় দলের রক্তদান কর্মসূচি সেরে বাড়ি ফিরছিলেন জেলা তৃণমূল সভাপতি। মেয়ের কাছে খবর পেয়ে তড়িঘড়ি ঘটনাস্থলে পৌঁছন। পুলিশের অ্যাম্বুল্যান্সে করে দুর্গাপুরের বিধাননগরের একটি বেসরকারি হাসপাতালে দু’জনকে নিয়ে যান। গৌতম রুইদাস এবং সঞ্জয় রুইদাসের চিকিৎসার প্রাথমিক খরচের জন্য পঞ্চাশ হাজার টাকা জমাও করেন তিনি। দীর্ঘক্ষণ তাঁদের চিকিৎসার তদারকি করেন।
পশ্চিম বর্ধমান জেলা তৃণমূলের সভাপতি নরেন্দ্রনাথ চক্রবর্তীর দাবি, দুর্ঘটনায় আহত ব্যক্তির মেয়ের কাছে খবর পাওয়া মাত্রই ঘটনাস্থলে পৌঁছে আহত দুজনকেই উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার ব্যবস্থা করেছেন। পুলিশ খুব তৎপরতার সঙ্গে তাঁদের সাহায্য করেছেন। গৌতম রুইদাসের অবস্থা আশঙ্কাজনক। তাঁর দু’টি পা নষ্ট হয়ে গিয়েছে। সঞ্জয় রুইদাস স্থিতিশীল রয়েছে বলেও তিনি জানান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *