দক্ষিণ লোহিত সাগরের পণ্যবাহী জাহাজ লক্ষ্য করে মিসাইল ছুঁড়ল হাউথি গোষ্ঠী

ফের লোহিত সাগরে মিসাইল ছুঁড়ল ইয়েমেনের হাউথি গোষ্ঠী। আক্রমণ করা হয়েছে বাব এল-মানদাব প্রণালীতে চলাচল করা পণ্যবাহী জাহাজে। এমনটাই অভিযোগ জানিয়েছে মার্কিন সেনা। ব্রিটিশ সামুদ্রিক নিরাপত্তা সংস্থা ইউকেএমটিওরের একটি রিপোর্টে প্রকাশিত হয়েছে এই খবর।

ওই রিপোর্টে জানানো হয়েছে, মঙ্গলবার ইরিট্রিয়া এবং ইয়েমেনের উপকূলের মধ্যে পণ্যবাহী জাহাজে বিস্ফোরণ হয়। তবে এই আক্রমণে জাহাজের কোনও ক্ষতি হয়নি। চালকদলের সব সদস্যরা সুরক্ষিত রয়েছেন। এ নিয়ে মার্কিন সেনার সেন্ট্রাল কমান্ড (সেন্টকম)-এর তরফে জানানো হয়েছে, দক্ষিণ লোহিত সাগরের পণ্যবাহী জাহাজ লক্ষ্য করে দুটি অ্যান্টিশিপ বা জাহাজ বিধ্বংসী ব্যালিস্টিক মিসাইল ছোঁড়ে ইরানের মদতপুষ্ট হাউথিরা। সেখানে আরও কয়েকটি বাণিজ্যিক জাহাজ ছিল। কিন্তু এই ঘটনায় কোনও ক্ষয়ক্ষতি হয়নি।
এক্স হ্যান্ডেলে সেন্টকম জানিয়েছে, গত ১৯ নভেম্বরের পর থেকে বাণিজ্যিক জাহাজগুলোতে ২৪টি হামলা চালিয়েছে হাউথিরা। এতে নিরীহ নাবিকদের জীবন বিপন্ন হচ্ছে। আন্তর্জাতিক বাণিজ্যের পথে ব্যাঘাত ঘটছে। এদিকে লোহিত সাগরের এই উত্তপ্ত পরিস্থিতি নিয়ে রাষ্ট্রসংঘে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন ফ্রান্সের কূটনীতিকরা। আন্তর্জাতিক মঞ্চে তাঁরা হাউথিদের এই আক্রমণের কথা তুলে ধরেন।

উল্লেখ্য, ইরানের মদতপুষ্ট হাউথিরাদের তরফে আগেই জানানো হয়েছে গাজায় প্যালেস্তিনীয়দের সমর্থনে এই হামলা চালানো হচ্ছে। ইজরায়েলের বিরুদ্ধে যুদ্ধে হামাসের পক্ষে রয়েছে তারা। ইজরায়েল-হামাস যুদ্ধের পর থেকেই লোহিত সাগরে হামলা বৃদ্ধি পেয়েছে। বেছে বেছে ইজরায়েলপন্থীা দেশগুলোর জাহাজে হামলার ঘটনা তাৎপর্যপূর্ণ। কয়েকদিন আগেই ভারতীয় বাণিজ্যতরীতে ড্রোন হামলা চালায় হাউথিরা। যা নিয়ে প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং জানিয়ে দেন, সমুদ্রের গভীর থেকেও হামলাকারীদের খুঁজে বের করবে ভারত। বলে রাখা ভালো, কয়েকদিন আগেই হাউথিদের তিনটি নৌকা ধ্বংস করে দেয় মার্কিন ফৌজ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *