প্রশাসনের নাকের ডগায় মাটি মাফিয়াদের দৌরাত্ম্যের অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিবেদন, বাঁকুড়া: বিষ্ণুপুরে মাটি মাফিয়াদের দৌরাত্ম্যের অভিযোগ। অভিযোগ, প্রশাসনের কার্যত নাকের ডগায় ভোর থেকে দিনের আলো ফোটা পর্যন্ত রমরমিয়ে চলছে মাটি পাচার। সংবাদমাধ্যমের প্রতিনিধিদের দেখতেই ঝুড়ি, কোদাল, গাঁইতি ফেলে দৌড় দিলেন মাটি কাটার কাজে যুক্ত শ্রমিকরা। বিজেপির অভিযোগ, শাসকদলের নেতাদের যোগসাজশেই চলছে এই অসাধু কারবার। অভিযোগ উড়িয়ে দিয়ে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ার আশ্বাস তৃণমূলের।
বাঁকুড়ার বিষ্ণুপুরের ঐতিহাসিক দিঘি লালবাঁধ সংলগ্ন এলাকায় রয়েছে বেশ কিছু রায়তি জমি। অভিযোগ, সেই জমিতেই ইদানিং থাবা বসিয়েছে মাটি মাফিয়ারা। স্থানীয়দের দাবি, গত দশ থেকে বারো দিন ধরে ভোর থেকে দিনের আলো ফোটা পর্যন্ত একে একে ট্রাক্টর এসে দাঁড়াচ্ছে ওই জমিগুলিতে। একশ্রেণির অসাধু মাটি মাফিয়ার মদতে বেশ কিছু শ্রমিক জমি থেকে মোরাম মেশানো মাটি ট্রাক্টরে বোঝাই করছেন। সেই দিনের আলো ফোটার আগেই ট্রাক্টর ছুটে যাচ্ছে বিষ্ণুপুরের বিভিন্ন এলাকায়।
জমির মালিক ঘটনার কথা জানেন না তেমনটা নয়। একাধিকবার তিনি তা আটকানোর চেষ্টাও করেছেন। কিন্তু দিনে দিনে যে ভাবে দৌরাত্ম্য বেড়েছে, তাতে নিরুপায় জমির মালিকও। এলাকায় মাটি কাটার কোনও বৈধ অনুমতি বা নথিপত্র নেই বলেই জানা গিয়েছে। প্রশাসনের নাকের ডগায় কী ভাবে দিনের পর দিন এভাবে কোনও রকম বৈধ নথি ছাড়াই মাটির কারবার চলছে, তা নিয়ে প্রশ্ন তুলছেন এলাকাবাসী।
বিজেপির দাবি, এই মাটির কারবারের সঙ্গে যুক্ত রয়েছে শাসকদলের নেতৃত্বের একাংশ। তাঁদের মদতেই এভাবে মাটির অবৈধ কারবার গেড়ে বসছে লালবাঁধ সংলগ্ন এলাকায়। বিজেপির অভিযোগ মানতে চায়নি তৃণমূল। তৃণমূলের দাবি, বিজেপির অভিযোগ সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন। কেউ মাটির অবৈধ কারবারে যুক্ত থাকলে তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *