পুরুলিয়াতে সুন্দরবন! রঞ্জনডি জলাধারের ছবি ভাইরাল, উপচে পড়ছে পর্যটক

নিজস্ব প্রতিবেদন, পুরুলিয়া: পারদ নামছে। নেমেই চলছে। আর যার জেরে জাকিয়ে শীত পড়তেই পর্যটকদের আগমন শুরু হয়ে গিয়েছে পুরুলিয়া জেলার বিভিন্ন পর্যটন স্থানগুলোতে। এই বছর পুরুলিয়ার অযোধ্যা পাহাড়, গড়পঞ্চকোট, জয়চণ্ডী পাহাড় পর্যটন স্থানগুলোর সঙ্গে যোগ হয়েছে কাশীপুরের রঞ্জনডি জলাধার। ইতিমধ্যে সোশ্যাল মিডিয়ার দৌলতে পুরুলিয়ার কাশীপুর থানার রঞ্জনডি জলাধার যেন পুরুলিয়ার সুন্দরবন হয়েই সাড়া ফেলে দিয়েছে। আর এই রঞ্জনডি জলাধারের ছবি সোশ্যাল মিডিয়ার দৌলতে ভাইরাল হতেই ভ্রমণপিপাসু মানুষজনের ভিড় উপচে পড়ছে পুরুলিয়ার ‘সুন্দরবনে’।
জানা যায়, পুরুলিয়ার আদ্রা রেলওয়ে স্টেশন থেকে প্রায় ১৩ কিলোমিটার দূরে এবং কাশীপুর থেকে প্রায় ৭ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত রঞ্জনডি জলাধার। যার আর এক নাম হল যোগমায়া সরোবর। পর্যটকরা বলছেন, এই জলাধারকে ঘিরে পুরুলিয়ায় একটি সুবিশাল পর্যটন কেন্দ্র গড়ে ওঠার সম্ভবনা তাঁরা দেখছেন। যদিও ইতিমধ্যেই এখানে গড়ে উঠেছে একাধিক সরকারি-বেসরকারি রিসোর্ট ও লজ।
স্থানীয় বাসিন্দাদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, এই জলাধার বা পর্যটন স্থানে পর্যটক টানতে রয়েছে জলাধারে বোটিং করার সুব্যবস্থা আর এই বোটিং করতে গিয়েই দেখা মেলে সুন্দরবনের সাদৃশ্য সৌন্দর্য। সোনাঝুরি গাছের অপরূপ দৃশ্য যেন সুন্দরবনেরই আর এক সৌন্দর্য, যা দেখে খুব সহজেই মুগ্ধ হয়ে উঠছেন আগত পর্যটকরা। আর এই শীতের মরশুমে পর্যটকদের ভিড় উপচে পড়ছে এই রঞ্জনডি জলাধারে। অপরদিকে রঞ্জনডি জলাধার বা যোগমায়া সরোবর জেলার অন্যতম পর্যটন কেন্দ্রের মাত্রা পাওয়ায় খুশি কাশীপুরবাসী তথা পুরুলিয়া জেলাবাসীর।
শীত পড়তেই পুরুলিয়া জেলার বিভিন্ন পর্যটন কেন্দ্রগুলিতে রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তের সঙ্গে ভিন রাজ্য এমনকি ভিন দেশ থেকেও পর্যটকদের আগমন শুরু হয়ে যায়। গমগম করে পর্যটন কেন্দ্র গুলি। এবারেও তার অন্যথা হয়নি। জাকিয়ে শীত পড়তেই পর্যটকদের আগমনও বাড়তে শুরু হয়েছে। চলতি মাসের ২৮ ডিসেম্বর শুরু হতে চলেছে পুরুলিয়ার বিখ্যাত হীরক রাজার দেশ জয়চণ্ডী পাহাড় পর্যটন উৎসব।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *