শেষ ওভারে সানরাইজার্সকে হারিয়ে প্লে-অফের আরও কাছে গুজরাত

আইপিএলের মঞ্চে প্রথমবার খেলতে এসেই সকলকে চমক দিয়েছে গুজরাত টাইটানস। হার্দিক পান্ডিয়ার নেতৃত্বের এই দলটি যেন একেবারে তরতরিয়ে ছুটছে। বুধবার রাতে ঘাড়ের ওপর নি:শ্বাস ফেলা সানরাইজার্স হায়দরাবাদকে ৫ উইকেটে পরাজিত করল তারা। সেই সঙ্গে প্লে-অফের আরও কাছে পৌঁছে গেল রশিদ, ঋদ্ধিমান, গিলরা।

১৯৬ রান তাড়া করতে নেমে শুরুটা বেশ ভালোভাবেই করেন গুজরাতের দুই ওপেনার ঋদ্বিমান এবং গিল। গিল মাত্র ২২ রানে ফিরে গেলেও, ঋদ্ধি ৩৮ বলে ৬৮ রানের অনবদ্য একটি ইনিংস খেলেন। এরপর হার্দিক পান্ডিয়া (১০) এবং ডেভিড মিলারও (১৭) ফিরে যান। তরুণ অভিনব মনোহর (০) কোনও রান না করেই আউট হন। শেষে দলকে জেতানোর দায়িত্ব গিয়ে পড়ে রাহুল তেওয়াতিয়া (৪০) ও রশিদ খানের (৩১) ওপর। আর তাঁরা সেই কাজটা সেরে ফেলতে সক্ষম হন। তবে গুজরাত টাইটানস ম্যাচ জিতলেও ৫ উইকেট নেওয়ার জন্য ম্যাচের সেরা হন উমরান মালিক। ৪ ওভার হাত ঘুরিয়ে তিনি ৫ উইকেটের বিনিময়ে খরচ করেন মাত্র ২৫ রান।

এদিন টসে জিতে প্রথমে বোলিং করার সিদ্ধান্ত গুজরাত টাইটানসের অধিনায়ক হার্দিক পান্ডিয়া। পাওয়ার প্লে-র মধ্যেই সানরাইজার্স ২ উইকেট হারিয়ে ফেলার ফলে মনে হয়েছিল তাঁর সিদ্ধান্ত কার্যকর হতে চলেছে। কিন্তু সময় গড়ানোর সঙ্গে সঙ্গেই চিত্রটা পুরোপুরি পাল্টে গেল। হায়দরাবাদের ব্যাটিংয়ের হাল ধরেন অভিষেক শর্মা (৬৫) এবং এইডেন মার্করাম (৫৬)। তাঁরা দু’জন অর্ধশতরান পূর্ণ করার পাশাপাশি, মোট ৯৬ রানের পার্টনারশিপ করেন। শেষ দিকে মার্কো জানসেন (৮) এবং শশাঙ্ক সিং (২৫) দলের স্কোরকে ২০০-র কাছাকাছি পৌঁছে দেন। গুজরাতের হয়ে সর্বাধিক ৩টি উইকেট নেন মহম্মদ শামি।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

1 × five =