ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে প্রথম দুটি টেস্টে বিরাটের বিকল্প রজত পাতিদার

বিরাট কোহলির পরিবর্ত রজত পাতিদার? কোনও ভাবেই মেনে নিতে পারছে না ক্রিকেটমহল। তাই ঘুরে-ফিরে ঢুকে পড়ছে একই প্রশ্ন, চেতেশ্বর পূজারা-অজিঙ্ক রাহানের মতো সিনিয়র ক্রিকেটাররা থাকা সত্ত্বেও কেন টিমে সুযোগ পেলেন না? ইংল্যান্ড পাঁচ টেস্টের সিরিজ খেলতে পা রেখেছে ভারতে। ২৫ জানুয়ারি হায়দরাবাদে শুরু হচ্ছে প্রথম টেস্ট। বেন স্টোকসের টিম প্রতিপক্ষ হিসেবে যথেষ্ট কঠিন। সেই টিমের বিরুদ্ধে প্রথম দুটো দুটো টেস্টে বিরাটের মতো প্লেয়ারের না থাকা ভারতের পক্ষে নেতিবাচক দিক। কী ভাবে সামাল দেবেন রোহিত শর্মা? মাঠে নামার আগে সাংবাদিকদের প্রশ্নের মুখে পড়তে হল ভারতের ক্যাপ্টেনকে।

চলতি মরসুমে রঞ্জি ট্রফিতে রাহানে সে ভাবে মেলে ধরতে পারেননি নিজেকে। কিন্তু পূজারা যথেষ্ট ফর্মে আছেন। সদ্য প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে ২০ হাজার রানের অবিস্মরণীয় রেকর্ড পূরণ করে ফেলেছেন। সুনীল গাভাসকর, সচিন তেন্ডুলকর, রাহুল দ্রাবিড়ের ক্লাবে নাম লেখানোর পর থেকেই পূজারাকে নিয়ে আলোচনা শুরু হয়ে গিয়েছিল। বিরাট ব্যক্তিগত কারণে সরে যাওয়ার পর পূজারাকে ভারতীয় টিমে ফেরানোর দাবি তুলে দিয়েছিলেন ক্রিকেট ভক্তরা। রোহিত কিন্তু বলে দিলেন, ‘আমরা ভেবেছিলাম, কোহলির অনুপস্থিতি পূরণ করতে পারবে এমন অভিজ্ঞ প্লেয়ারই নেওয়া উচিত। তার পর মনে হয়েছে, তা হলে আর কবে তরুণদের সুযোগ দেব?’

রোহিতের যুক্তি কিন্তু ফেলে দেওয়া যাচ্ছে না। ভারতীয় টিমের বেশ কয়েক জন সিনিয়র ক্রিকেট জীবনের প্রান্তে চলে এসেছেন। রাহানে, পূজারারা টেস্টে একটা সময় অপরিহার্য ছিলেন। কিন্তু তাঁদের আবার ফেরানো মানে পিছনের দিকে তাকানো। যা চাইছে না টিম ম্যানেজমেন্ট। রোহিত যে ভাবে পুরো ব্যাপারটা ব্যাখা করছেন, পূজারা ও রাহানের মতো দুই সিনিয়র ক্রিকেটারের আন্তর্জাতিক কেরিয়ারের যে শেষ, অনুমান করাই যায়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *