কামারপুকুরে মা সারদা, ঠাকুর শ্রীরামকৃষ্ণ ও স্বামীজির প্রাণ প্রতিষ্ঠায় পুণ্যার্থীদের ভিড়

আরামবাগ: আরামবাগ মহকুমার পবিত্র ভূমি হল গোঘাটের কামারপুকুর। ঠাকুর শ্রীরামকৃষ্ণের জন্মভূমি। ঠাকুর শ্রীরামকৃষ্ণের পদধূলি ধন্য কামারপুকুরের ডাক বাংলো সংস্কার করার পাশাপাশি ডাক বাংলোর প্রবেশ দ্বারে ঠাকুর শ্রীরামকৃষ্ণ, মা সারদা ও স্বামী বিবেকানন্দের মূর্তির প্রতিষ্ঠা হল বুধবার। জানা গেছে হুগলি জেলা পরিষদের উদ্যোগে শ্রীরামকৃষ্ণ, মা সারদা ও বিবেকানন্দের মূর্তির প্রতিষ্ঠা হয়।

এদিন এই তিন মনীষীর মূর্তির উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন হুগলি জেলা শাসক মুক্ত আর্য থেকে শুরু করে আরামবাগ মহকুমার প্রশাসনিক আধিকারিক ও কামারপুকুর পঞ্চায়েতের প্রধান ও জনপ্রতিনিধিরা। এদিন সকালে পূজা অর্চনার মধ্যে দিয়ে শুরু হয় শ্রীরামকৃষ্ণ সারদা ও বিবেকানন্দের পূর্ণ মূর্তির প্রাণ প্রতিষ্ঠা। কামারপুকুর মঠের অধ্যক্ষ লোকোত্তর নন্দজি মহারাজ সহ অন্যান্য মহারাজেরা পুজো পাঠে অংশ গ্রহণ করে। আর এই পুজোপাঠ ও তিন মনীষীর মূর্তির উদ্বোধনী অনুষ্ঠান দেখতে বহু পুণ্যার্থী সমাগম ঘটে। এই বিষয়ে কামারপুকুর মঠ মিশনের অধ্যক্ষ মহারাজ স্বামী লোকোত্তরা নন্দী মহারাজ বলেন, ভগবান শ্রী রামকৃষ্ণের জন্মস্থানে জেলা পরিষদের উদ্যোগে ধুমধামের সঙ্গে সারদা দেবী, রামকৃষ্ণ ও বিবেকানন্দের পূর্ণ মূর্তির প্রতিষ্ঠা করা হল। বিশেষ পুজোপাঠ হয়। সঙ্গে অনেক ভক্ত এসেছে এখানে, খুবই ভালো লাগল।

অপরদিকে হুগলি জেলা পরিষদের উপাধ্যক্ষ অরুণ কেওরা জানান, রামকৃষ্ণর জন্মস্থানে জেলা পরিষদের উদ্যোগে রামকৃষ্ণ সারদা বিবেকানন্দের মূর্তির উদ্বোধন করা হল। কামারপুকুরবাসীর মনের কুঠিরে বৃন্দাবন হল ঠাকুর শ্রীরামকৃষ্ণের জন্মস্থান।

কামারপুকুর পঞ্চায়েতের প্রধান রাজদীপ দে বলেন,
হুগলি জেলা পরিষদের প্রয়াসে কামারপুকুর ডাক বাংলো সংস্কার করা হয়। এদিন এই বাংলোর প্রবেশ দ্বার সংলগ্ন স্থানে মা, ঠাকুর ও স্বামীজির মূর্তির উদ্বোধন ও বিশেষ পুজোপাঠ হয়। সবমিলিয়ে আরামবাগ মহকুমা তথা রাজ্যবাসীর কাছে কামারপুকুর মঠ ও মিশন পবিত্র ভূমি। এই ভূমিতে তিন মনীষীর মূর্তি উদ্বোধন হওয়ায় খুশি পুণ্যার্থীরা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *