স্বামীকে পিটিয়ে মারায় স্ত্রী ও শ্যালকের যাবজ্জীবন

নিজস্ব প্রতিবেদন, বাঁকুড়া: মদ খাওয়ার ‘অপরাধে’ এক স্বামীকে লাঠি দিয়ে পিটিয়ে মারার অভিযোগে মৃতের স্ত্রী ও শ্যালককে একযোগে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের নির্দেশ দিল আদালত। বুধবার বাঁকুড়ার খাতড়া মহকুমা আদালতের অতিরিক্ত জেলা দায়রা আদালতের বিচারক ধনঞ্জয় কুমার সিং অভিযুক্ত স্ত্রী সৌরভী হাঁসদা ও শ্যালক হিমাংশু হাঁসদাকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডেরû নির্দেশ দেন।
আদালত সূত্রে জানা গিয়েছে, ২০১১ সালের ১ অক্টোবর বাঁকুড়ার রাইপুর থানার মেথিশোল গ্রামে নিজের স্ত্রী সৌরভী হাঁসদার সঙ্গে বচসা বাধে শংকর হাঁসদার। এই সময় স্ত্রী সৌরভী ও শ্যালক হিমাংশু হাঁসদা একযোগে শংকর হাঁসদার ওপর হামলা চালিয়ে লাঠি দিয়ে ব্যাপক মারধর করে বলে অভিযোগ। পরে গুরুতর আহত অবস্থায় শংকরবাবুকে প্রতিবশীরা রাইপুর গ্রামীণ হাসপাতালে নিয়ে গেলে সেখানেই তাঁর মৃত্যু হয়। পরের দিন রাইপুর থানায় হাজির হয়ে মৃতের দাদা চন্দ্র হাঁসদা লিখিত অভিযোগ জানান মৃতের স্ত্রী ও শ্যালকের বিরুদ্ধে।
প্রাথমিক ভাবে দু’জনকে গ্রেপ্তার করা হলেও পরবর্তীতে আদালত দু’জনেরই জামিন মঞ্জুর করে। সম্প্রতি খাতড়া মহকুমা আদালত বেশ কিছু সাক্ষ্য গ্রহণের পর শংকর হাঁসদাকে নৃশংস ভাবে খুনের জন্য স্ত্রী সৌরভী হাঁসদা ও শ্যালক হিমাংশু হাঁসদাকে দোষীসাব্যস্ত করে। এদিন খাতড়া মহকুমা আদালতের অতিরিক্ত জেলা দায়রা বিচারক ধনঞ্জয় কুমার সিং অভিযুক্ত দু’জনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের নির্দেশ দেন। অভিযুক্তপক্ষের দাবি, এই রায়ে তাঁরা সন্তুষ্ট নন। আগামী দিনে তাঁরা এই রায়ের বিরুদ্ধে উচ্চ আদালতে আবেদন জানাবেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *