প্রেমিকাকে ছেড়ে অন্য মেয়ের সঙ্গে ছাদনা তলায় প্রেমিক, শ্রীঘরে যুবক

টিটব বিশ্বাস

প্রেমিকাকে ছেড়ে অন্য মেয়ের সঙ্গে ছাদনাতলায় প্রেমিক। প্রেমিকার অভিযোগে ফুলশয্যার রাতে শ্রীঘরে যুবক। প্রেমিকার অভিযোগে বৌভাতের আসর থেকে শ্রীঘরে যুবক। ঘটনাটি ঘটেছে গাইঘাটা থানার দেবীপুর এলাকায়। অভিযুক্ত প্রেমিকের নাম অভিজিৎ দাস। একটি বেসরকারি সংস্থায় কর্মরত। প্রেমিকার পরিবার সূত্রে জানা গিয়েছে, প্রতিবেশী মৌমিতা সরকারের সঙ্গে অভিজিতের বছর আটেক ধরে প্রেমের সম্পর্ক ছিল। নিয়মিত ঘুরতে যাওয়া খাওয়া-দাওয়া মেলামেশা সবকিছু চলছিল তাদের। মাস তিনেক আগে প্রেমের ছন্দ পতন হয়। প্রেমিকা জানিয়েছেন, অভিজিৎ বাবার সঙ্গে দীঘায় যাচ্ছে বলে তাঁকে জানিয়েছিল। বাড়ি ফিরে প্রেমিকার সঙ্গে সমস্ত সম্পর্ক ছিন্ন করে দেয়। তারপর নাবালিকা ও তার পরিবার খোঁজ খবর নিয়ে জানতে পারেন অভিযুক্ত শিলিগুড়ি এলাকায় গোপনে রেজিস্ট্রি ম্যারেজ করেছে। ওই মেয়েকে দেবীপুর এলাকায় এনে কুড়ি এপ্রিল সামাজিকভাবে বিয়ে করেছে। এরপরই গাইঘাটা থানায় প্রেমিকের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ করে প্রেমিকা। অভিযোগ মৌমিতার সঙ্গে দীর্ঘদিন প্রেম করে বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে একাধিক বার সহবাস করে অভিযুক্ত। তার সঙ্গে প্রতারণা করে অন্য মেয়েকে বিয়ে করেছে সে। অভিযোগ পেয়ে পুলিশ ঘটনার তদন্তে নামে। পুলিশ জানিয়েছে,তারা জানতে পারে অভিযুক্ত শুক্রবার রাতে গোবরডাঙ্গার একটি বাড়িতে বসে বৌভাতের অনুষ্ঠান করছে। বৌভাতের আসর থেকে তাকে গ্রেপ্তার করে শনিবার দুপুরে বনগাঁ মহকুমা আদালতে পাঠিয়েছে। মৌমিতা জানান,অভিজিৎ আমাকে বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে বহুবার শারীরিক সম্পর্ক করেছে৷দু-বার গর্ভপাত করাতে হয় আমাকে। আমি ওকে আর বিয়ে করতে চাই না। আমি চাই আইনের মাধ্যমে ওর উচিত শিক্ষা হোক। অভিযোগ অস্বীকার করে ছেলের বাবা অচিন্ত্য দাস বলেন, ওই মেয়েটিকে আমরা জিজ্ঞাসা করেছিলাম আমার ছেলেকে বিয়ে করতে চায় কি না। বিয়ে করব না জানিয়ে কয়েক লক্ষ টাকা দাবি করেছিল। মিথ্যা সহবাসের অভিযোগ ওরে আমার ছেলেকে ফাঁসিয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

5 + 13 =