কেজরিওয়ালকে আরও চার দিনের ইডি হেপাজতের নির্দেশ

আদালতে নিজেই নিজের হয়ে সওয়াল করলেন। অভিযোগ করলেন, আপের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র হচ্ছে। তাঁকে গ্রেপ্তার করার মতো কোনও প্রমাণ ইডির হাতে নেই। স্রেফ কতগুলি ধারণার ভিত্তিতে তাঁকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। কিন্তু রাউস অ্যাভিনিউ কোর্টে দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়ালের কোনও যুক্তিই খাটল না। তাঁর ইডি হেপাজতের মেয়াদ আরও চারদিন বাড়িয়ে দিল আদালত। আগামী ১ এপ্রিল পর্যন্ত ইডি হেপাজতেই থাকতে হবে কেজরিকে।

দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘এটা একটা রাজনৈতিক ষড়যন্ত্র। মানুষ ঠিক এর জবাব দেবে।’ আদালতে কেজরির সঙ্গে ছিলেন তাঁর স্ত্রী সুনীতা। অতিশী, গোপাল রাই, সৌরভ ভরদ্বাজের মতো আম আদমি পার্টির (আপ) নেতারাও ছিলেন আদালতে। সূত্রের খবর, ইডি কেজরির হেপাজতের মেয়াদ বৃদ্ধির আবেদন জানাতে পারে।

আদালতে নিজের সপক্ষে বলতে গিয়ে কেজরি বলেন, ‘ইডির রিম্যান্ডের আবেদনের বিরোধিতা করছি না। ওরা যত দিন চায় আমাকে হেফাজতে রাখতে পারে। কিন্তু এটা একটা দুর্নীতি। এতে ইডির দু’টি উদ্দেশ্য। এক, আপকে ভেঙে দেওয়া। দুই, আড়ালে তোলাবাজির চক্র চালানো।’

তিনি আরও বলেন, ‘ইডি বলছে, আবগারি দুর্নীতিতে ১০০ কোটি টাকা নয়ছয় হয়েছে। তা হলে সেই টাকা কোথায় গেল? আসল দুর্নীতিটা শুরু হয়েছে ইডির তদন্ত শুরু হওয়ার পর। আমাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। কোনও আদালতে আমাকে অপরাধী প্রমাণ করা যায়নি। সিবিআই ৩১ হাজার এবং ইডি ২৫ হাজার পৃষ্ঠার চার্জশিট দিয়েছে। সেগুলো পড়েও আমাকে গ্রেপ্তার করার কোনও কারণ খুঁজে পাওয়া যাবে না।’

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

13 − thirteen =