রোগা হতে না পেরে আত্মহত্যা! মরণঝাঁপ ব্যবসায়ীর

কলকাতা: সাত সকালে মরণঝাঁপ ব্যবসায়ীর! শুক্রবার কলকাতার লাউডন স্ট্রিটে একটি বহুতলের সামনে থেক উদ্ধার হল এক প্রৌঢ়ের দেহ। দেহটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তে পাঠিয়েছে পুলিশ। প্রৌঢ়ের মৃত্যুর কারণ তল্লাশিতে নেমে তদন্তকারীরা জানতে পেরেছেন তিনি অবসাদে ভুগছিলেন।

জানা গিয়েছে, মৃত প্রৌঢ়ের নাম মুকেশ খেমখা। আমদানি-রপ্তানি ব্যবসার সঙ্গে যুক্ত ছিলেন তিনি। থাকতেন লাউডন স্ট্রিটের একটি বহুতল বিলাসবহুল আবাসনে। শুক্রবার সকালে আচমকা এগারো তল থেকে মুকেশবাবু ঝাঁপ দেন বলেই প্রাথমিকভাবে অনুমান।ভারী কিছু পড়ার আওয়াজ পেয়ে আশপাশের লোকেরা ছুটে যান বহুতলের সামনে। দেখতে পান রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে রয়েছেন ব্যবসায়ী। সঙ্গে সঙ্গে তাঁকে নিয়ে যাওয়া হয় হাসপাতালে। সেখানেই চিকিৎসরা প্রৌঢ়কে মৃত বলে ঘোষণা করেন।

প্রাথমিকভাবে মনে করা হচ্ছে, ঝাঁপ দিয়ে আত্মঘাতী হয়েছেন প্রৌঢ়। কিন্ত কী কারণে আত্মহত্যা? জানা গিয়েছে, দীর্ঘদিন ধরে ওজন কমানোর চেষ্টা করছিলেন মুকেশ। তার জন্য নানারকম উপায় অবলম্বনও করেছিলেন। কিন্তু কিছুতেই কিছু হচ্ছিল না। ফলে গত তিনমাস ধরে মানসিক অবসাদে ভুগছিলেন ওই ব্যবসায়ী। সেই কারণেই এই আত্মহত্যার সিদ্ধান্ত বলে প্রাথমিকভাবে মনে করা হচ্ছে। তবে এটা আত্মহত্যা নাকি, নেপথ্যে অন্য কোনও ঘটনা আছে, খতিয়ে দেখছে পুলিশ।

 

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

15 + nine =