ধোনির মাঠে তারুণ্যে ভরা সিরিজ জয় ভারতের

গত ১০ বছরে টিম ইন্ডিয়া যা পারেনি, সোম-সকালে তাই করে দেখালেন রোহিত শর্মারা। এক টেস্ট হাতে রেখে রাঁচিতে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে সিরিজ পকেটে পুরে ফেলল টিম ইন্ডিয়া। দেশের মাটিতে গত ১০ বছরে চতুর্থ ইনিংসে ১৫০-র বেশি রান তাড়া করে জিততে পারেনি ভারত। মহেন্দ্র সিং ধোনির শহরে বেন স্টোকসদের বিরুদ্ধে এ বার সেটা করে দেখাল রোহিত শর্মার নেতৃত্বাধীন ভারত। রাঁচি টেস্টের তৃতীয় দিন থেকেই ভারতীয় ক্রিকেট প্রেমীরা এই ম্যাচ ও সিরিজ জয়ের আনন্দ উৎসব পালনে লেগে পড়েছিল। অপেক্ষা ছিল শুধু সোমবার ভারতের চতুর্থ টেস্ট জয়ের। শেষ অবধি প্রায় দেড় দিন বাকি থাকতেই রাঁচি টেস্ট ও সিরিজ দুটোই রোহিতদের মুঠোয়। নেপথ্যে বলতেই হয় দুই তরুণের কথা। শুভমন গিল ও ধ্রুব জুরেল এই দুই তরুণ তুর্কি ধোনির মাঠে জেতাল ভারতকে।

তৃতীয় দিনের শেষে বিনা উইকেটে ভারতের ওপেনিং জুটি তুলেছিল ৪০ রান। এরপর সোম-সকালে ৬৯ বলে অর্ধশতরান পূরণ করেন রোহিত শর্মা। সেই সময় রোহিতের সঙ্গে ছিলেন ওপেনার যশস্বী জয়সওয়াল। এরপর জো রুট তুলে নেন যশস্বীর উইকেট। ৪১ বছর বয়সী জেমস অ্যান্ডারসন ডাইভ দিয়ে ক্যাচ তালুবন্দি করেন। যে ছন্দে ছিলেন অধিনায়ক রোহিত শর্মা, তিনি ভারতকে জিতিয়ে মাঠ ছাড়তে পারতেন। কিন্তু ২৫.১ ওভারে টম হার্টলি তুলে নেন রোহিতের উইকেট। ৮১ বলে ৫৫ রান করে মাঠ ছাড়েন রোহিত। এরপর দলকে জেতানোর সুবর্ণ সুযোগ ছিল রজত পাতিদার এবং শুভমন গিলের কাছে। রজত রাঁচিতেও ব্যর্থ হয়েছেন। প্রথম ইনিংসে ১৭ রান করে শোয়েব বশিরের শিকার হয়েছিলেন রজত। দ্বিতীয় ইনিংসে রজতকে রানের খাতা খোলার সুযোগই দেননি সেই শোয়েব বশিরই।

যেখানে ১ উইকেটে ৮৪ রান স্কোরবোর্ডে ছিল সেখানে ১০০ রানের মধ্যে ৩ উইকেট হারিয়ে ফেলে ভারত। এরপর শুভমন গিল ও রবীন্দ্র জাডেজা দলকে এগিয়ে নিয়ে যেতে থাকেন। এই জুটিকে রান তোলার জন্য খুব তাড়াহুড়ো করতে দেখা যায়নি। লাঞ্চ বিরতিতে টিম ইন্ডিয়া তোলে ৩ উইকেটে ১১৮ রান। জয়ের জন্য সেই সময় প্রয়োজন ছিল ৭৪ রান। এরপর লাঞ্চ বিরতি থেকে ফিরেই রবীন্দ্র জাডেজার উইকেট তুলে নেন শোয়েব বশির। ৪ রান করে মাঠ ছাড়েন জাড্ডু। তারপর মাঠে নামেন সরফরাজ। গোল্ডেন ডাক হয়ে ফেরেন তিনি।

শুভমন গিল এবং ধ্রুব জুরেল সেই জায়গা থেকে দলকে জেতানোর দায়িত্ব কাঁধে তুলে নেন। শেষ অবধি ১৩৬ বলে শুভমন ও ধ্রুবর ৭২ রানের অপরাজিত পার্টনারশিপে ভর করে ৫ উইকেটে এই টেস্ট ম্যাচ জেতে টিম ইন্ডিয়া। ৫২* রান করেন শুভমন আর ৩৯ রানের অপরাজিত ইনিংস উপহার দেন ধ্রুব। এ বার সিরিজ ৩-১ করে ধরমশালা যাবেন রোহিতরা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

20 − eighteen =