কাপলিং খুলে বিপত্তি হাওড়া-মুম্বই মেলে, দুর্ঘটনার হাত থেকে রক্ষা

বরাত জোরে বড় দুর্ঘটনা থেকে রক্ষা পেল আপ হাওড়া-মুম্বই মেল। শুক্রবার হাওড়ার উলুবেড়িয়ার কাছে বীরশিবপুর স্টেশনে ঢোকার মুখে খুলে গেল হাওড়া-মুম্বই মেলের দু’টি কামরা জোড়ার কাজে ব্যবহৃত কাপলিং। বীরশিবপুরের ওই জায়গা থেকে ট্রেনটিকে মেরামতির জন্য ফিরিয়ে আনা হয় উলুবেড়িয়া স্টেশনে। শুক্রবার রাত ৯টা ৩০ মিনিট নাগাদ উলুবেড়িয়া ছাড়ার পরেই খুলে যায় ইঞ্জিন-সহ ২টি বগি। ওই অবস্থাতেই প্রায় এক কিলোমিটার ইঞ্জিন ও দুটি বগি সহ ট্রেনটি এগিয়ে যায়, আর বাকি কামরাগুলো গতির জোরে এগোতে থাকে। ফলে বড় দুর্ঘটনা ঘটে যাওয়ার সম্ভাবনা ছিল বলেই মনে করছেন যাত্রীরা।

ট্রেনের চালক বিষয়টা বুঝতে পেরে ট্রেন দাঁড় করিয়ে দেন। উলুবেড়িয়া স্টেশনে প্রথম খবর দেওয়া হয়। জানতে পেরে ঘটনাস্থলে এসে পৌঁছন দক্ষিণ-পূর্ব রেলের পদস্থ আধিকারিকরা। রেলের ইঞ্জিনিয়াররা কাজ শুরু করেন। প্রায় এক ঘণ্টা পর ফের ওই লাইনে ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক হয়। কাপলিং মেরামত করে জোড়ার পর মুম্বই মেল পুনরায় তার গন্তব্যের উদ্দেশ্যে যাত্রা করে। এদিকে  বিপত্তির জেরে রাত ৯টা ৩০ মিনিটের পর থেকে হাওড়া-খড়গপুর আপ লাইনে ট্রেন চলাচল বন্ধ ছিল। দক্ষিণ-পূর্ব রেলের মুখ্য জনসংযোগ আধিকারি আদিত্য কুমার চৌধুরী বলেন,’ এই ধরনের ঘটনার খবর পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে রেলের আধিকারিকরা সেখানে পৌঁছন।  তড়িঘড়ি মেরামতি করে ট্রেনটাকে কিছুক্ষণের মধ্যেই ছেড়ে দেয়া হয়। এই ঘটনাটি কেন ঘটেছে তার তদন্ত করে দেখা হবে। ঘটনার জেরে ট্রেন চলাচলে কোনওরকম প্রভাব পড়েনি।’

উল্লেখ্য চলতি মাসেই হাওড়া স্টেশন ঢোকার ১৫০ মিটার আগে পূর্ব রেলের ডাউন বাগনান লোকাল ট্রেনের ৫ নম্বর কামরার চারটি চাকা বেলাইন হয়। ঘটনাকে কেন্দ্র করে চাঞ্চল্য ছড়ায় ও যাত্রীদের হয়রানির চূড়ান্ত হয়। বারংবার এই ধরণের ঘটনায় রেলের অভ্যন্তরীণ রক্ষনাবেক্ষনের নজরদারির গাফিলতিকেই দায়ী করছেন যাত্রীরা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *