সানস্ক্রিন ব্যবহার করছেন? জেনে নিন কোনটা আপনার জন্য সঠিক

প্রচণ্ড রোদ, সূর্যের ক্ষতিকার অতি বেগুনি রশ্মি থেকে ত্বকের ক্ষতি রুখতে সানস্ক্রিন মাস্ট। কিন্তু কোন সানস্ক্রিন আপনার ত্বকের জন্য উপযুক্ত সেটা জানা আছে কি? না হলে এ নিয়ে কিন্তু বিড়ম্বনার অন্ত থাকবে না। মুখে ফুটে উঠবে সাদা ছোপ। নয়তো মুখ দেখাবে ভীষণ কালো। উপায় হল, সঠিক সানস্ক্রিন বাছতে আগে আপনার ত্বকের ধরণ বুঝে নিন।

ত্বক যদি তৈলাক্ত হয়, তাহলে খুব বেশি ঘাম হয়। সে ক্ষেত্রে সোয়েট ফ্রি কিংবা জেল বেসড সানস্ক্রিন ব্যবহার করুন। সানস্ক্রিন স্প্রে ব্যবহার করতে পারেন। সূর্যের তাপ থেকে ত্বক রক্ষাও পাবে, আর ঘামও হবে না। সানস্ক্রিন ব্যবহারের মিনিট ২০ আগে মুখে বরফ ঘষে নিন। ত্বক ঠান্ডা থাকা অবস্থায় সানস্ক্রিন মেখে মিনিট ১০- অপেক্ষা করার পর বের হন। এতে সঙ্গে সঙ্গে ঘাম হবে না।

শুষ্ক ত্বকের ক্ষেত্রে ময়শ্চারাইজিং সানস্ক্রিন ব্যবহার করলে সবচেয়ে ভাল ফল পাবেন। এই ধরনের সানস্ক্রিন ত্বকের আদ্রতা বজায় রাখতে সাহায্য করে।

যাঁদের ত্বকে ব্রণ বা ফুসকুড়ির সমস্যা রয়েছে, গরমে তাঁদের সমস্যা আরও বেড়ে যায়। এ ক্ষেত্রে কোনও রাসায়নিক মিশ্রিত, সুগন্ধি যুক্ত সানস্ক্রিন এড়িয়ে চলুন। ডাক্তারের পরামর্শে কোনও মেডিকেটেড সানস্ক্রিন ব্যবহার করুন। এক্ষেত্রে নিম পাতা ফোটানো জল ফ্রিজে ঠান্ডা করে সেটা মুখে অন্তত দুবার লাগালে ভাল ফল পাবেন। এর পাশাপাশি সানস্ক্রিন ব্যবহার করুন।

ত্বকে যদি সংবেদনশীল হয়, অল্পেই সমস্যা দেখা দেয়, সে ক্ষেত্রে প্যারাবেন বা অক্সিবেনজোন যুক্ত সানস্ক্রিন ব্যবহার না করাই ভাল। এই ধরনের ত্বকের ক্ষেত্রে টাইটেনিয়াম ডাই-অক্সাইড বা জিঙ্ক অক্সাইডযুক্ত সানস্ক্রিন ব্যবহার করলে ভাল ফল পাবেন।

অতিবেগনি রশ্মির হাত থেকে সুরক্ষার জন্য ন্যূনতম এসপিএফ ৩০ প্রয়োজন। এসপিএফ ৫০+ সানস্ক্রিন ব্যবহার করলে সবসময় ভাল ফল পাবেন।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

five × three =