কাল কোচবিহারে মোদি ও মমতার হাইভোল্টেজ সভা

রাজ্যে লোকসভা ভোটের প্রথম পর্যায়ের প্রচার বৃহস্পতিবার থেকেই তুঙ্গে উঠতে চলেছে। প্রথম পর্যায়ে আগামী ১৯ এপ্রিল উত্তরবঙ্গের তিন আসন কোচবিহার আলিপুরদুয়ার ও জলপাইগুড়ি আসনে ভোটগ্রহণ। তার আগে  ওই আসনগুলিতে দলীয় প্রার্থীদের জন্য ভোট প্রচারে নামছেন যুযুধান দুই শিবির তৃণমূল কংগ্রেস এবং বিজেপির দুই সর্বোচ্চ নেতা। প্রবীণ বিজেপি নেতা প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এবং তৃণমূল কংগ্রেস নেত্রী মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কোচবিহার থেকেই রাজ্যে লোকসভা ভোটের প্রচার শুরু করতে চলেছেন প্রধানমন্ত্রী। কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী ও বিজেপি প্রার্থী নিশীথ প্রামাণিকের হাইভোল্টেজ কেন্দ্র কোচবিহারের  রাসমেলা ময়দানে সভা করবেন নরেন্দ্র মোদি।

বিকেলে বিহারের জামুই থেকে হাসিমারা হয়ে কোচবিহার পৌঁছবেন তিনি।  বিকেল সাড়ে চারটেয় কোচবিহার শহরের রাসমেলা ময়দানে সভা করবেন নরেন্দ্র মোদি। এখনও পর্যন্ত যা খবর, তাতে প্রথমে হাসিমারা এয়ারবেসে পৌঁছবেন প্রধানমন্ত্রী। আবহাওয়া ভাল থাকলে সেখান থেকেই কপ্টারে তাঁর কোচবিহার শহরে পৌঁছনোর কথা আছে তাঁর। বিজেপি সূত্রে খবর, ভোটের আগে বাংলায় এই নিয়ে ৯ দিনে চারটি সভা করছেন প্রধানমন্ত্রী।

এর আগের সভাগুলি থেকে শুধু  সমর্থনের আবেদন নয়, মানুষের কাছে বা কর্মীদের একেবারে সংখ্যা উল্লেখ করে লক্ষ্যমাত্রা স্থির করে দিয়েছেন নরেন্দ্র মোদি। বঙ্গ শিবিরকে ৪২-এ ৪২ এর টার্গেট বেঁধে দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। তবে এখনও পর্যন্ত বিজেপি ৪২ টি আসনের প্রার্থীর নামই দিতে পারেনি বিজেপি। তবে বেশির ভাগ আসনের প্রার্থীর নামই এখন ঘোষিত। কিছু কিছু জায়গায় বিজেপিরই অন্দরে প্রার্থী বাছাই নিয়ে অসন্তোষের খবরও এসেছে। প্রথম দফায় বাংলার ২০ জন প্রার্থীর তালিকাতেই ছিল নিশীথ প্রামাণিকের নাম। জেলার লোকসভা আসনে প্রার্থী ঘোষণা হতেই, বেসুরো হন বিজেপি সাংসদ অনন্ত মহারাজ। বলেন, ‘রাজ্য বিজেপি আমাকে ডাস্টবিনে রেখে দিয়েছে। কেউ কোনও যোগাযোগই রাখেন না। প্রার্থী বাছাই নিয়েও আলোচনা করা হয়নি।’ কোচবিহারে লোকসভা ভোটের প্রার্থী ঘোষণা হতেই এমন কথা শোনা যায় তাঁর কথায়। তাই কোচবিহার কেন্দ্রে মোদির সভা করা বিশেষ তাৎপর্যপূর্ণ বলেই মনে করা হচ্ছে।

অন্যদিকে আজ থেকেই উত্তরে নির্বাচনী প্রচারে ঝড় তুলবেন মুখ্যমন্ত্রী। জলপাইগুড়ি ও কোচবিহারে দলীয় প্রার্থীদের সমর্থনে জোড়া জনসভা করবেন তিনি। রবিবার কৃষ্ণনগরে জনসভা করেই রাতে ঝড়-বিধ্বস্ত জলপাইগুড়িতে যান মুখ্যমন্ত্রী। সেখান থেকে বৃহস্পতিবার ভোট প্রচারে প্রথমে কোচবিহারের মাথাভাঙায় প্রার্থী জগদীশ বসুনিয়ার সমর্থনে এবং তারপর জলপাইগুড়ির মালে তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থী নির্মলচন্দ্র রায়ের সমর্থনে জনসভা করার কথা রয়েছে তাঁর।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *