টাকা দিয়ে মামলা প্রভাবিত করার চেষ্টা! হলদিরাম মামলায় গুরুতর অভিযোগ বিচারপতির

কলকাতা: বিচারপতিকে প্রভাবিত করার, টাকা দিয়ে মামলা প্রভাবিত করার চেষ্টার হয়েছে। এমন অভিযোগ তুলেই মামলা থেকে সরে দাঁড়ালেন বিচারপতি শেখর ববি শরাফ। খাদ্যপণ্য প্রস্তুতকারী এক নামী সংস্থা হলদিরামের একটি মামলায় এই ঘটনা ঘটেছে।

জানা গিয়েছে, সম্পত্তি সংক্রান্ত একটি মামলায় বিচারপতি শেখর ববি শরাফ শুক্রবার এই অভিযোগ তোলার পর মামলা ছেড়ে দেবেন বলে জানান আইনজীবী হরিশ সালভে। বর্ষীয়ান এই আইনজীবী হলদিরামের তরফে এই মামলা লড়ছিলেন। কিন্তু, এ দিন তিনি এমন গুরুতর অভিযোগ সামনে আসায় মামলা ছেড়ে দেওয়ার কথা বলেন। আগেও অনেক মামলায় বিচারপতিদের সরে দাঁড়াতে দেখা গিয়েছে। কিন্তু এমন একটি অভিযোগ এভাবে সামনে আসার ঘটনা কার্যত নজিরবিহীন।

এদিনের শুনানিতে হলদিরামের তরফে ভার্চুয়ালি উপস্থিত ছিলেন আইনজীবী হরিশ সালভে। বিচারপতি শেখর ববি শরাফ তাঁকে জানান, হলদিরামের পক্ষেরই কোনও আইনজীবী তাঁর ঘরে গিয়ে টাকা দিয়ে তাঁকে প্রভাবিত করার চেষ্টা করে। মহেশ আগরওয়াল নামে এক ব্যক্তির সঙ্গে হলদিরামের এই মামলা চলছে। এক্সাইড মোড়ের কাছে সংস্থার যে দোকান আছে, সেই সম্পত্তি সংক্রান্ত একটি মামলা বলে জানা গিয়েছে।

এদিন বিচারপতি বলেন, ‘মাথায় রাখুন আমরা কিন্তু বিক্রির জন্য নয়। এটা দুর্ভাগ্যজনক ঘটনা। একজন আইনজীবী আমার চেম্বারে এসেছিলেন। আমি বিস্মিত। আপনার তরফেই কেউ এসেছিল। এই ভাবে বিচারপতির চেম্বারে কেউ ঢুকে মামলা প্রভাবিত করার চেষ্টা করতে পারে, এটা ভেবেই আমি স্তম্ভিত।’ বিচারপতি উল্লেখ করেন, এটা একটা চল হয়ে গিয়েছে, এখন আইনজীবীরা যে কেউ বিচারপতির চেম্বারে হেঁটে যেতে পারেন। বিচারপতিদের কেনা যায় না, এ কথা বলেই মামলা থেকে সরে দাঁড়ানোর কথা বলেন তিনি। এই অভিযোগ শুনে লজ্জিত হন হরিশ সালভেও। মামলা থেকে নিজেকে সরিয়ে নেওয়ার কথা জানান তিনি। এরকম একটি অভিযোগের কালি তিনি গায়ে লাগতে দিতে চান না।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

thirteen + 16 =