গুজরাতের দাহোদ মেক ইন ইন্ডিয়ার বড় কেন্দ্র হতে চলেছে, একাধিক প্রকল্পের সূচনার পর আত্মবিশ্বাসী মোদি

গুজরাতের দাহোদ ও পঞ্চমহলে বুধবার বিভিন্ন উন্নয়নমূলক প্রকল্পের সূচনা করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। একইসঙ্গে প্রধানমন্ত্রী জানালেন, মেক ইন ইন্ডিয়ার (Make In India) একটি বড় কেন্দ্রে পরিণত হতে চলেছে দাহোদ। প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, বর্তমানে ভারতীয় রেল আধুনিক হচ্ছে, বিদ্যুতায়ন দ্রুত ঘটছে। মালগাড়ির জন্য আলাদা রুট করা হচ্ছে। বৈদ্যুতিক লোকোমোটিভের চাহিদা বিদেশেও বাড়ছে। এই চাহিদা পূরণে বড় ভূমিকা রাখবে দাহোদ। এদিনের অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন মুখ্যমন্ত্রী ভূপেন্দ্র প্যাটেলও।

মোদির কথায়, দাহোদ এখন মেক ইন ইন্ডিয়ার একটি বড় কেন্দ্রে পরিণত হতে চলেছে। বাষ্পীয় ইঞ্জিনের জন্য এখানে যে কর্মশালা তৈরি করা হয়েছিল, তা এখন মেক ইন ইন্ডিয়াকে গতি দেবে। এখন দাহোদে ২০ হাজার কোটি টাকার কারখানা তৈরি হতে চলেছে। ভারত এখন বিশ্বের সেই সমস্ত দেশের মধ্যে একটি যে দেশ ৯ হাজার হর্স পাওয়ারের শক্তিশালী লোকো তৈরি করে।

এদিন যে সমস্ত উন্নয়নমূলক প্রকল্পের সূচনা করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি(Narendra Modi), সেগুলি উল্লেখ করে বলেছেন, জলের এই প্রকল্পের ফলে দাহোদের শতাধিক গ্রামের মা-বোনদের জীবন অতি সহজ হয়ে উঠতে চলেছে। দাহোদ এখন মেক ইন ইন্ডিয়ার একটি বড় কেন্দ্রে পরিণত হতে চলেছে। এদিন দাহোদ এবং পঞ্চমহলের উন্নয়ন সম্পর্কিত ২০ হাজার কোটি টাকারও বেশি মূল্যের প্রকল্পগুলির উদ্বোধন করা হয়েছে এবং ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করা হয়েছে। যে প্রকল্পগুলির উদ্বোধন করা হয়েছে, তার মধ্যে একটি হল পানীয় জল সংক্রান্ত একটি প্রকল্প এবং অন্যটি দাহোদকে একটি স্মার্ট সিটি করার জন্য একটি প্রকল্প।

ভারতীয় রেলওয়ের দাহোদ ওয়ার্কশপ কেন্দ্রীয় সরকারের ‘মেক ইন ইন্ডিয়া’ এবং ‘মেক ফর ওয়ার্ল্ড’ উদ্যোগের অধীনে একটি প্রযুক্তিগত ভাবে ৯ হাজার হর্সপাওয়ার একটি বৈদ্যুতিক লোকোমোটিভের জন্য একটি উৎপাদন ইউনিটে পরিণত হতে চলেছে বলে ভারতীয় রেলওয়ে জানিয়েছে। ২০২৪ সালের প্রথম দিকে চালু হবে এই লোকোমোটিভ। ২০ হাজার কোটি টাকার বেশি বিনিয়োগ এই লোকোমোটিভ ইউনিট ৯ হাজার হর্সপাওয়ার তৈরি করবে বলে আশা করা হচ্ছে বলে ভারতীয় রেলওয়ে জানিয়েছে।

দাহোদ ওয়ার্কশপ ভারতীয় রেলের জন্য ব্রডগেজ বৈদ্যুতিক লোকোমোটিভ এবং রপ্তানি বাজারের জন্য স্ট্যান্ডার্ড গেজ বৈদ্যুতিক লোকোমোটিভ তৈরি করবে। লোকোমোটিভটি গ্রিন এনার্জি ব্যবহার করে তৈরি করা হবে। উচ্চ হর্সপাওয়ার মালবাহী লোকোমোটিভগুলি মালবাহী ট্রেনের পরিবহণ ক্ষমতা এবং গতির উন্নতি ঘটাবে এবং এর ফলে ছোটো গেজের ট্র্যাকগুলিকে কমিয়ে দেবে এবং লজিস্টিক খরচও কমবে বলে মনে করা হচ্ছে। এটি সর্বোচ্চ ১২০কিলোমিটার গতিতে ৪৫০০-টন কার্গো লোড বহন করতে সক্ষম হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

12 − 7 =