হরিয়ানা থেকে ধৃত চার সন্দেহভাজন খলিস্তানি জঙ্গি, উদ্ধার বিপুল পরিমাণ বিস্ফোরক

হরিয়ানায় (Haryana) গ্রেপ্তার ৪ সন্দেহভাজন খলিস্তানি জঙ্গি। উদ্ধার হয়েছে বিপুল বিস্ফোরকও। অভিযোগ, পাক সীমান্ত থেকে ড্রোনের মাধ্যমে অস্ত্র পাচার করা হয়েছিল। সেই আগ্নেয়াস্ত্রই পঞ্জাবে (Punjab) পাচারের ছক কষেছিল ধৃত ৪ খলিস্তানি জঙ্গি। তবে সেই পরিকল্পনা সফল হওয়ার আগেই পুলিশি তৎপরতায় ভেস্তে গেল ছক।

বৃহস্পতিবার সকাল ৪টে নাগাদ হরিয়ানার কার্নালের (Karnal) বস্তারের এক টোলপ্লাজা থেকে চার সন্দেহভাজনকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। সূত্রের খবর, ধৃতদের মধ্যে একজন জেলখাটা আসামীও রয়েছে। নাম গুরপ্রীত। জেলেই তার সঙ্গে রাজীব নামে একজনের আলাপ হয়। সূত্রের খবর, রাজীবের সঙ্গে পাকিস্তানের গোয়েন্দা সংগঠন আইএসআই(ISI)-এর যোগাযোগ ছিল। সেই সূত্র ধরেই অস্ত্র পাচারের ব্যবসায় নামে গুরপ্রীত। বাকি তিন ধৃতের নাম আমনদীপ, ভূপেন্দ্র এবং পরবিন্দর সিং। সকলেই পঞ্জাবের (Punjab) বাসিন্দা।

পুলিশ সূত্রে খবর, ড্রোনের মাধ্যমে সীমান্ত পেরিয়ে অস্ত্র আসত ভারতে। মূলত পাঞ্জাব বা হরিয়ানার বিভিন্ন অঞ্চলে ফেলা হত সেই আগ্নেয়াস্ত্র। সেগুলি সংগ্রহ করে দেশের বিভিন্ন প্রান্তে পৌঁছে দেওয়াই ছিল এই চারজনের পেশা। গুরপ্রীতরা হরবিন্দর সিং নামে এক জঙ্গির কাছ থেকে অস্ত্র এবং বিস্ফোরক নিত। তার পর সেগুলি দেশের বিভিন্ন প্রান্তে সরবরাহ করত।এবার ড্রোন মারফত বিপুল আগ্নেয়াস্ত্র পাক সীমান্ত থেকে আনা হয়েছিল ফিরোজপুরে। সেই বিস্ফোরক এবার তেলেঙ্গানার নান্দেদে পৌঁছে দেওয়ার দায়িত্ব ছিল এই চারজনের উপর।

যদিও অন্য একটি সূত্রের খবর, এদিন সেই বিস্ফোরক নিয়ে দিল্লির উদ্দেশে রওনা হয়েছিল তারা। তার আগেই উদ্ধার হল সেই বিস্ফোরক। সঙ্গে পুলিশের জালে এল ৪ খলিস্তানি (Khalistani) জঙ্গিও।

হরবিন্দর পাকিস্তান থেকেই এই সব পরিচালনা করে বলে জানতে পেরেছে পুলিশ। ধৃত চার জঙ্গিকে আইইডি সরবরাহ করতে দিয়েছিল হরবিন্দর। তার দু’টি জায়গায় সেই বিস্ফোরক সরবরাহ করেছে বলে সূত্র মারফৎ খবর পেয়েছে পুলিশ। ধৃত জঙ্গিদের কাছ থেকে একটি দেশি বন্দুক, ৩১টি তাজা কার্তুজ, আইইডি ভর্তি তিনটি লোহার বাক্স এবং নগদ ১ লক্ষ ৩০ হাজার টাকা উদ্ধার হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

18 − 15 =