৩০৩ জন ভারতীয় সমেত বিমান আটক ফ্রান্সে, ঘটনাস্থলে ভারতীয় আধিকারিকরা

৩০৩ যাত্রী সমেত নিকারাগুয়াগামী একটি বিমানকে আটকানো হল ফ্রান্সে। যান্ত্রিক ত্রুটির কারণে ভ্যাট্রি বিমানবন্দরে নামলেও মানব পাচার রুখতেই সেটিকে আটকায় প্রশাসন। সূত্রের খবর, এই ঘটনায় আন্তর্জাতিক মানব পাচার চক্রের যোগ রয়েছে বলে মনে করছে ফ্রান্স। ভারতীয় আধিকারিকরা ঘটনাস্থলে পৌঁছেছেন। যাত্রীদের কাছে পৌঁছোনোর অনুমতি পেয়েছে সেখানকার ভারতীয় দূতাবাস। দেখা হচ্ছে, ভারতীয়রা সকলে নিরাপদ রয়েছেন কিনা।

রোমানিয়ার সংস্থা লিজেন্স এয়ারলাইন্সের এই এ৩৪০ বিমানটি সংযুক্ত আরব আমিরশাহী থেকে ছেড়েছিল। ভ্যাট্রি বিমানবন্দরে সেটি নামে। বিমানবন্দরের রিসেপশন হলটিকে কার্যত যাত্রীদের ওয়েটিং রুমে পরিণত করা হয়েছে। মোট ৩০৩ জন ভারতীয় বিমানটিতে ছিলেন।

জানা গিয়েছে, বিমানটি ওই বিমানবন্দরটিতে নেমে পড়ে। কারিগরি সমস্যার কারণেই এই অবতরণ বলে পুলিশকে জানানো হয়েছে। অজ্ঞাতপরিচয় সূত্রে প্রশাসনের কাছে খবর পৌঁছায়। সন্দেহ হলে বিমানটিকে আটকানো হয়। এই ঘটনায় এখনও পর্যন্ত দু’জনকে আটক করা হয়েছে। তাঁদের জিজ্ঞাসাবাদ চলছে। বিমানে থাকা ৩০৩ জন ভারতীয় মানব পাচারের শিকার হতে পারেন, আবার বেআইনিভাবে তাঁরা আমেরিকা এবং কানাডায় ঢোকার উদ্দেশেও রওনা দিয়ে থাকতে পারেন, এমন সন্দেহও মাথাচাড়া দিচ্ছে। বিষয়টি নিয়ে তদন্ত শুরু হয়েছে। ফ্রান্সের সংগঠিত অপরাধ-বিরোধী শাখা জেইউএনএলসিও এই ঘটনার তদন্ত করছে।

ফ্রান্সের ভারতীয় দূতাবাসে তরফে এঘটনাকে কেন্দ্র করে এক্স হ্যান্ডেলে একটি বিবৃতি দেওয়া হয়েছে। বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ‘ফরাসি বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ আমাদের জানিয়েছেন যে দুবাই থেকে নিকারাগুয়াগামী একটি বিমানকে ফরাসি বিমানবন্দরে আটক করা হয়েছে। খবর পাওয়া মাত্রই ঘটনাস্থলে পৌঁছয় দূতাবাসের দল। জানা গিয়েছে বিমানটিতে ছিলেন ৩০ ৩জন ভারতীয় যাত্রী। আমরা পরিস্থিতি তদন্ত করছি। যাত্রীদের সুস্থতাও নিশ্চিত করার সব রকম ব্যবস্থা নিয়েছি।’

প্যারিস সরকারের এক আইনজীবী জানিয়েছেন, বিমানটিকে ফ্রান্সের বিমানবন্দরে আটক করা হয় মানব পাচার সন্দেহের ভিত্তিতে। ওই বিমানে ছিলেন ৩০৩ জন ভারতীয়। বিমানটি সংযুক্ত আরব আমিরশাহি থেকে উড়েছিল। তবে সন্দেহের ভিত্তিতে ও সুরক্ষা করাণে যাত্রা স্থগিত করা হয় ফ্রান্সের বিমানবন্দরে। বিষয়টি খতিয়ে দেখছে ফ্রান্সের বিচার বিভাগ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *