ইংল্যান্ডের অধিনায়ক হয়েই ব্রড-অ্যান্ডারসন জুটিকে ফেরানোর সিদ্ধান্ত স্টোকসের

মাথা তুলে দাঁড়াতে চাইছে ইংল্যান্ড ক্রিকেট। নতুন অধিনায়ক হওয়ার পর সেরকম ইঙ্গিত দিয়েছেন বেন স্টোকস। বিশ্বের অন্যতম সেরা অলরাউন্ডার ইংল্যান্ডের অধিনায়ক হওয়ার পর বেশি পরিবর্তন করতে রাজি নন। দুজন পুরনো প্রমাণিত তারকাকে ফিরিয়ে আনতে চলেছেন বিগ বেন। গত অ্যাশেজে ইংল্যান্ডের ব্যর্থতার বলি হয়েছিলেন দুই পেস সুপারস্টার জেমস অ্যান্ডারসন আর স্টুয়ার্ট ব্রড।

ইতিহাসের দুই সেরা পেসারকে ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে দল থেকে বাদ দেওয়া হয়েছিল। সেই সফরেও ভরাডুবি হয় ইংল্যান্ডের। এরপর সমালোচনার মুখে নেতৃত্ব ছাড়তে বাধ্য হন জো রুট। তবে নেতৃত্ব বদল হওয়ায় এবার দুই পেস তারকার কপাল খুলছে। দলে সুযোগ পাচ্ছেন ৩৯ বছর বয়সী অ্যান্ডারসন ও ৩৫ বছর বয়সী ব্রড।

ইংলিংশ ক্রিকেটের পালাবদলের মাঝে সম্প্রতি নতুন ব্যবস্থাপনা পরিচালকের দায়িত্ব পেয়েছেন রবার্ট কি। নিজের প্রথম সংবাদ সম্মেলনে এসে তিনি বলেন, এই দায়িত্বে আমার নাম ঘোষণার আগেই আমি জিমি ও ব্রডিকে ফোন করে বলেছি, এই গ্রীষ্মের প্রথম টেস্টের দল নির্বাচনে তোমাদের নাম বিবেচিত হবে। তবে আমি তো ব্যবস্থাপনা পরিচালক। ওরা জানতে চেয়েছিল, অধিনায়কের ভাবনাও একইরকম কিনা।

বেন স্টোকস প্রথম যে কথাগুলি বলেছেন, এর মধ্যে ছিল, জিমি ও ব্রডি দলে ফিরে আসছে। আমি তাতে সায় দিয়েছি। আমাদের কারও দ্বিমত থাকলে হয়তো ভিন্ন কিছু হতো। তবে সেটা নিয়ে কোনো বিতর্কই হয়নি। বয়স হয়ে গেলেও অ্যান্ডারসন ও ব্রড এখনও ইংল্যান্ডের সেরা বোলার। শোনা যায়, মূলতঃ বয়সের কারণে ৬৪০ উইকেটের মালিক অ্যান্ডারসন ও ৫৩৭ টেস্ট উইকেট শিকারি ব্রডকে বাদ দেওয়া হয়। রবার্ট কি মনে করেন, দুজনেই জানেন জাতীয় দলে ফিরতে তাদের কী করতে হবে, ‘ওদের নিজেদের পরিকল্পনা আছে। জিমি ও ব্রডির মতো দুজনকে আমাদের বলে দিতে হবে না যে, টেস্ট ম্যাচের জন্য প্রস্তুত হতে কী করতে হবে। ওরা না জানলে এটা আর কেউই জানে না। প্রথম টেস্টের জন্যই ওদেরকে তৈরি থাকতে হবে। ওদের না পারার কোনো কারণ আমি দেখি না।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

eight + eight =