প্রাণ প্রতিষ্ঠা রামলালার, জানেন এই মূর্তি কে গড়েছেন, কী তার বিশেষত্ব?

নির্ঘণ্ট মেনে অযোধ্যার রাম মন্দিরে শুরু হয়েছে রাম লালার প্রাণ প্রতিষ্ঠা। আর প্রথমবার সামনে এসেছে রামলালার পাথরের তৈরি অদ্ভূত সুন্দর মূর্তি। দেশবাসী টেলিভিশন চ্যানেলের মাধ্যমেই সেই মূর্তি এখনও পর্যন্ত চাক্ষুষ করেছেন। তাতেই ধরা পড়েছে রামলালার রূপ। চোখের আদল, অভিব্যক্তি। মুখে তাঁর স্মিত হাসি। কপালে তিলক, হাতে তির-ধনুক। মূর্তিটি ৫১ ইঞ্চি লম্বা, চওড়ায় ৩ ফুট। ওজন প্রায় ২০০ কেজি। ভগবান রামকে দাঁড়িয়ে থাকা ভঙ্গিতে পাঁচ বছরের শিশু হিসেবে চিত্রিত করা হয়েছে।

কৃষ্ণবর্ণ এই মূর্তিখানিতে রামলালার রূপ দিয়েছেন মাইসুরুর শিল্পী অরুণ যোগীরাজ। মূর্তির প্রধান বিশেষত্ব হল, একটি কৃষ্ণশিলা দিয়ে এটি গড়া হয়েছে। সূত্রের খবর, রাম মন্দিরের জন্য মন্দির কর্তৃপক্ষ তিনটি মূর্তি তৈরির বরাত দিয়েছিল। মূর্তি তৈরির জন্য নেপাল থেকে শালগ্রাম শিলা আনা হয়েছিল। কিন্তু তা মূর্তি তৈরির কাজে লাগেনি। কারণ, খোদাইয়ের সময় বারবার সেই পাথর ভেঙে যাচ্ছিল। পরে ঠিক হয় কালো পাথরের মূর্তি তৈরি হবে। অরুণ যোগীরাজের তৈরি মূর্তি বেছে নেওয়া হয়েছে। বাকি ২টি শালগ্রাম শিলা মন্দিরের অন্যত্র স্থান পাবে বলেই জানা গিয়েছে। যে বেদিতে রামলালা থাকবেন, সেটি ৩.৪ ফুট উঁচু। তৈরি মাকরানা পাথর দিয়ে।

মাইসুরুর শিল্পী যোগীরা এর আগে আদি শঙ্করাচার্যের মূর্তিও তৈরি করেছিলেন। শালগ্রাম শিলা

রামলালার মূর্তির চালচিত্রে রয়েছে বিষ্ণুর দশাবতার–মৎস্য, কুর্ম, বরাহ, নৃসিংহ, বামন, পরশুরাম, রাম, কৃষ্ণ, বুদ্ধ ও কল্কি। মূর্তির একদিকে রয়েছেন হনুমান ও অপর দিকে রয়েছেন গরুড়। রামলালার মূর্তির যে মুকুট রয়েছে তাতে সূর্য, শঙ্খ, স্বস্তিক, চক্র ও গদা রাখা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *