রণডিহা ড্যামে ঝুঁকিপূর্ণ নৌকা বিহার, অভিযোগ প্রশাসন উদাসীন

নিজস্ব প্রতিবেদন, বাঁকুড়া: সোনামুখীর রণডিহা ড্যামে পর্যটকদের ঝুঁকিপূর্ণ নৌকা বিহার চলার অভিযোগ। তাতে প্রশাসনিক উদাসীনতার অভিযোগও উঠছে।
বাঁকুড়া জেলার সোনামুখী ব্লকের দামোদর নদের ওপর অবস্থিত রণডিহা ড্যামে শীতের মরশুমে হাজার হাজার পর্যটক ভিড় জমিয়ে থাকেন। এই ড্যামের এক প্রান্তে রয়েছে বাঁকুড়া জেলা এবং অপর প্রান্তে রয়েছে পশ্চিম বর্ধমান জেলা। দুই জেলার পর্যটকের পাশাপাশি অন্যান্য জেলা থেকেও পর্যটকরা এই ড্যামে ভিড় জমান। ড্যামে বেড়াতে এসে পর্যটকরা নৌকা বিহার করবেন না তা কি হয়! আর তাই আনন্দ নিতে বেশিরভাগ পর্যটককে দেখা যায় নৌকা বিহার করতে।
আর এখানেই প্রশ্ন উঠছে, প্রশাসনের ভূমিকা নিয়ে। কোনও রকম লাইফ জ্যাকেট ছাড়াই ছোট ছোট নৌকায় বেশ কয়েকজন করে নৌকা বিহার করছেন। এইরকম পরিস্থিতিতে নৌকাডুবির মতো মারাত্মক দুর্ঘটনা ঘটলে দায় কে নেবে সেটাই এখন লাখ টাকার প্রশ্ন।
রতন রাজবংশী নামে এক নৌকা চালকের দাবি, নিজেদের সচেতন থেকেই নৌকা চালাতে হচ্ছে। অপরদিকে রবিন রাজবংশী নামে অপর এক নৌকা চালকের দাবি, গত তিন বছর আগে একটি মাত্র লাইফ জ্যাকেট দেওয়া হয়েছে। একটি লাইফ জ্যাকেট নিয়ে কী হবে তাই ওটা রেখে দেওয়া হয়েছে। আর দুর্ঘটনা ঘটলে নিজেদেরকেই দায় নিতে হবে বলে দাবি করেন তিনি ।
বিশ্বজিৎ ঘোষ, জয়ন্ত ঝাঁ নামে পর্যটকরা জানান, প্রত্যেকে নিজেদের দায়িতেবই নৌকা বিহার করছেন। তবে লাইফ জ্যাকেটের বন্দোবস্ত করা হলে ভালো হয়। এ বিষয়ে সোনামুখী বিধানসভার বিজেপি বিধায়ক দিবাকর ঘরামির দাবি, এই বিষয় নিয়ে প্রশাসনের সে ভাবে নজর নেই। যদি নজর থাকত, তা হলে এই ড্যাম আরও বেশি আকর্ষণীয় হয়ে উঠত। এ বিষয়ে সোনামুখী পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি কুশল বন্দ্যোপাধ্যায় দাবি করেন, ‘বিষয়টা আমাদের নজরে এসেছে। ওখানে সব ধরনের সুবন্দোবস্ত কী ভাবে করা যায়, তার চেষ্টা করা হচ্ছে।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *