বিজেপি শাসিত রাজ্যের বেলা চুপ থাকেন কেন! রাজ্যপালকে চিঠি মুখ্যমন্ত্রী মমতার

কলকাতা: রামপুরহাটের বগটুই গ্রামে ১০ জনের অগ্নিদগ্ধ হয়ে মৃত্যুর ঘটনায় তোলপাড় বঙ্গ রাজনীতি। উত্তাপ পৌঁছেছে দিল্লিতেও। এই পরিস্থিতিতে ফের রাজ্যের আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়। একে ‘ভয়ঙ্কর হিংসার ঘটনা’ বলেছেন। মঙ্গলবার তাঁর মন্তব্যের বিরোধিতা করে চিঠি লিখলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। মমতার দাবি, রাজ্যপালের পদে আসীন থেকে ধনখড়ের এই মন্তব্য অনুচিত। পাশাপাশি, রাজ্যপালকে তাঁর প্রশ্ন, কেন বিজেপি শাসিত রাজ্যে এমন কোনও ঘটনা ঘটলে তিনি নীরব থাকেন? মুখ্যমন্ত্রীর অভিযোগ, পশ্চিমবঙ্গে যখনই কোনও ‘দুর্ভাগ্যজনক ঘটনা’ ঘটে রাজ্যপাল রাজ্য সরকারের সমালোচনা ও নিন্দার সুযোগ ছাড়েন না।
সোমবার বীরভূমের রামপুরহাটের বগটুইয়ে তৃণমূলের এক উপপ্রধান খুন হন। তাঁর পরেই তাঁর এলাকার কয়েকটি বাড়িতে আগুন ধরানো হয়। মৃত্যু হয় ১০ জনের। মঙ্গলবার এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে তপ্ত রাজ্য রাজনীতি। এই ঘটনাকে প্রসঙ্গে রাজ্যপাল একটি ভিডিয়ো বার্তায় জানান, ‘এ রাজ্যে আইনের শাসন নেই। সন্ত্রাসের সংßৃñতি চলছে।’ পাশাপাশি, রাজ্যের মুখ্যসচিবের কাছে ঘটনার রিপোর্ট চান তিনি।
তার প্রেক্ষিতে রাজ্যপালকে চিঠি দিলেন মুখ্যমন্ত্রী। চিঠিতে মমতা জানান, রামপুরহাটে এতগুলো মানুষের প্রাণ যাওয়ার ঘটনায় রাজ্য সরকার ব্যথিত। কিন্তু ঘটনার সঙ্গে সঙ্গে পদক্ষেপ করেছে সরকার। সংশ্লিষ্ট এলাকার থানার অফিসারদের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ করা হয়েছে। ইতিমধ্যে সিট গঠন হয়েছে। গ্রেফতারও করা হয়েছে। জেলাশাসক, পুলিশ সুপার-সহ পদস্থ আমলারা উপদ্রুত এলাকায় রয়েছেন। কিন্তু তার মধ্যেই রাজ্যপালের মন্তব্য তাঁকে ব্যথিত করেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

thirteen − three =